অবশেষে দীর্ঘ সময়ের অবসান ঘটিয়ে ভারতেই তৈরি হয়ে গেল যুদ্ধবিমান তেজস,সওয়ারি হলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং..

তিনি যে এখন দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী। হ্যাঁ আপনারা ঠিকই ধরেছেন এখানে কথা বলা হচ্ছে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং এরই। আজ বৃহস্পতিবার দিন তিনি বায়ুসেনার তেজস যুদ্ধবিমানে উড়লেন। তাঁর পরনে ছিল বায়ুসেনা বিমানচালকের সবুজ জলপাই ছাপ পোশাকটি। মুখে ছিল হালকা হাসি।তারপর তিনি দুই সিটে হালকা ওজনের যুদ্ধবিমানের ব্যাকসিটে বসে আকাশে উড়লেন। 68 বছর বয়সী দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং এবার তেজস যুদ্ধবিমান এর সাথে আকাশে উড়লেন।

তার চালকের আসনে ছিলেন বায়ুসেনার এয়ার ভাইস মার্শাল নর্মদেশ্বর তিওয়ারী।এই দিন দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বিমানে করে আকাশে ওড়ার আগে বেঙ্গালুরু ন্যাশনাল ফ্লাইট টেস্ট সেন্টার থেকে বায়ুসেনার কর্মী ও বিমান চালকদের কাছ থেকে তেজস বিমানটির খুঁটিনাটি জেনে নিলেন, তারপর তিনি বিমানে বায়ুসেনারা যুদ্ধবিমানে চড়ার আগে যে বিশেষ পোশাক পড়ে থাকে সেটি পড়ে তেজসের দিকে এগিয়ে গেলেন।

শুধু তাই নয় প্রায় 30 মিনিট ধরে তিনি প্রচণ্ড বেগে আকাশপথে উড়ে তেজস বিমান এর খুঁটিনাটি দেখে নিলেন। তবে আপনাদের আরো বলে রাখি এই প্রথমবার হবে যখন কোন প্রতিরক্ষামন্ত্রী বায়ুসেনার তেজস বিমানে করে উড়লেন। এই উড়ানের পর উচ্ছ্বাসিত হয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী টুইট করে জানান তেজসে উড়াটা একটা অসাধারণ অভিজ্ঞতা ছিল তার।আর এই তেজস বিমান এর ফলে ভারতের আকাশপথে প্রতিরক্ষাকে আরো শক্তিশালী করা সম্ভব হবে বলে জানতে পারা যাচ্ছে।

তবে এই তেজস যুদ্ধ বিমানটি সফল হয়েছে ভারতের হিন্দুস্তান এয়ারোনটিকস লিমিটেড ও এয়ারোনটিকাল ডেভেলপমেন্ট এজেন্সির যৌথ প্রচেষ্টায়। প্রাপ্ত খবর থেকে যা জানতে পারা গেছে এখন থেকে এবার বায়ুসেনার মিগ-21 যুদ্ধবিমান এর বদলে ব্যবহার করা হতে চলেছে এই বিমানটি কে।তেজস যুদ্ধবিমান রাখা হয়েছে মাত্র একটি ইঞ্জিন কারণ এটিকে উচ্চগতিতে ওড়ার ক্ষমতা ও হালকা ওজন রাখতে এই পদক্ষেপটি নেওয়া হয়েছে। বায়ুসেনা 83 টি তেজস বিমানের মধ্যে দশটিতে রয়েছে দুটি সিটের ব্যবস্থা ,বায়ুসেনা সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী জানতে পারা আছে এগুলি বিমান চালক দের প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত করা হবে।

Related Articles

Close