চীনের বিরুদ্ধে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী D10 গ্রুপ! এবার ভারতের কাছে চীনের খেলা শেষ করার রয়েছে বড় সুযোগ…

চীনের জন্যই আজকে সারা বিশ্ব মহামারীর কবলে পড়েছে। তাই বর্তমানে এখন সারাবিশ্বে একজোট হয়ে চীনকে জব্দ করার পথে এগোচ্ছে। এর আগে বহুবার আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চীনকে দায়ী করেছে এই করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার জন্য। এখন আমেরিকা সহ আরো বাকি দেশগুলো চীনকে শায়েস্তা করার জন্য পথে নেমে পড়েছে। খবর পাওয়া গেছে প্রতিটি দেশ তাদের নিজেদের ক্ষমতা মত চীনের অর্থনৈতিক অবস্থাকে দুর্বল করার কাজে নেমে পড়েছে।

বহু নামিদামি কোম্পানিগুলো এই মুহূর্তে চীন থেকে তাদের ব্যবসা-বাণিজ্য উঠিয়ে ভারত সহ আরো অন্যান্য দেশে ব্যবসা শুরু করার চিন্তাভাবনা শুরু করে দিয়েছে। কারণ প্রত্যেকটা দেশেই জানে চীনের ইকোনমিক বেশ শক্তিশালী তাই সমস্ত দেশগুলিকে একসাথে মিলে কাজ করতে হবে চীনকে দুর্বল করার জন্য। বর্তমানে এখন সারা বিশ্বের কাছে সবথেকে প্রভাবশালী সংগঠন G7 রয়েছে কিন্তু এ সংগঠনে চীনের কিছুটা প্রভাব আছে। তবে বিশ্বের বাকি দেশগুলোর মিলে D10 নামের একটি শক্তিশালী সংগঠন গঠন করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে।


এই শক্তিশালী সংগঠন মধ্যে থাকবে আমেরিকা, ফ্রান্স, জার্মানি, ভারতের নতুন গণতান্ত্রিক দেশ গুলি। একথা আপনাদের জানিয়ে দিই আর কয়েকদিন পরেই সারা বিশ্বজুড়ে 5G technology রাজ আসতে চলেছে। কিন্তু একটা কথা মনে রাখতে হবে এই 5G টেকনোলজি সারা বিশ্বজুড়ে বিস্তার করা এবং এর সমস্ত সিস্টেম তৈরি করা থেকে শুরু করে লাগানো পর্যন্ত সমস্ত কাজ করতে গেলে অনেক টাকা খরচা হবে। তাই দেশের অর্থ ব্যবস্থার ওপর নির্ভর করবে এই 5-জি টেকনোলজি। চীন এই 5 জি টেকনোলজিকে হাতিয়ার করেই সারা বিশ্বকে লুটে নেওয়ার পরিকল্পনা ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে।

আর এই D10 সংগঠনের একটাই কাজ হবে চীন যাতে এই কাজ না করতে পারে সেই দিক লক্ষ্য রাখা। এবং 5 জি টেকনোলজির উপর কাজ করে যাওয়া। 5 জি টেকনোলজি নিয়ে ভারত এখন কোন চিন্তাভাবনা করছে না ইতিমধ্যে। কিন্তু এই D10 সংগঠনে থাকলে ভারত এর লাভ তুলতে পারবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এই D10 সংগঠন চীনের একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তারকে বাধা দিতে সক্ষম হবে বলে মনে করেছেন অনেকেই।