আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরেই ক্রমশ শক্তি বাড়িয়ে ধেয়ে আসছে সুপার সাইক্লোন নিসর্গ, জারি একাধিক সর্তকতা..

কয়েক সপ্তাহ আগে সুপার সাইক্লোন আমফানের জেরে বাংলা সহ ওড়িশার উপকূলে এলাকাগুলিতে অনেক হয় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আর এই প্রকোপ থেকে বেরিয়ে আসার কাজ চলছে এখনো আর এরই মধ্যে আবারও এক ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়তে চলেছে মুম্বাই, গুজরাটের উপকূলবর্তী অঞ্চল গুলিতে। আজ বুধবার দিন আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরই উপকূল অঞ্চলে আঁচড়ে পড়তে চলেছে শতকের ভয়ংকরতম ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ।তবে এটা প্রথম নয় যখন এরকম এক ঘূর্ণিঝড় আসছে , এর আগে 1882 সালে তৎকালীন বোম্বাইয়ে আছড়ে পড়েছিল বোম্বাই সাইক্লোন, যার দরুন প্রাণ গিয়েছিল লক্ষাধিক মানুষের।

তবে এখন আবহাওয়াবিদদের তরফ থেকে যে খবরটি বেরিয়ে আসছে সেখানে জানতে পারা যাচ্ছে গত 1 ঘন্টায় সুপার সাইক্লোন এ পরিণত হয়েছে এই ঝড় টি ফলে মুম্বাইয়ের আলিবাগ এলাকায় ল্যানফল হওয়ার সময় গতিবেগ থাকতে পারে প্রতি ঘন্টায় 110 থেকে 130 কিলোমিটার পর্যন্ত।আর এরকম গতিবেগ থাকার ফলে প্রাণহানির পাশাপাশি সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে। তাই ইতিমধ্যে এই বিষয় নিয়ে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে শুরু করে দিয়েছে প্রশাসন।

সময়ের সাথে সাথে ক্রমশ শক্তি বাড়িয়ে মুম্বাইয়ের দিকে ধেয়ে আসছে সুপার সাইক্লোন নিসর্গ। এখনো পর্যন্ত আবহাওয়া সূত্রে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে আলিবাগ থেকে প্রায় 140 কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থান করছে এই ঘূর্ণিঝড় টি। আর মুম্বাই এর থেকে দূরত্ব 190 কিলোমিটার, যেখানে সুরাট থেকে এই সুপার সাইক্লোনের দূরত্ব রয়েছে 400 কিলোমিটার এর কাছাকাছি। কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই মুম্বাই ও আলিবাগে ঢুকে পড়বে এই সুপার সাইক্লোন।যদিও এই ঝড়ের প্রকোপ আপাতত পড়তে শুরু হয়ে গেছে কারণ গতকাল মঙ্গলবার রাত থেকে প্রবল বৃষ্টিপাত শুরু হয়ে গিয়েছে আর যত বেলা বাড়ছে তত বাড়ছে বৃষ্টির দাপট।

তাই এখন একপ্রকার ঘরবন্দি হয়ে রয়েছে মুম্বাই বাসীরা। অন্যদিকে বিপর্যয় মোকাবেলা জন্য তৈরি করা হয়েছে বাহিনীকে যারা ইতিমধ্যে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন।প্রশাসনের তরফ থেকে জারি করা বিবৃতিতে জানানো হয়েছে এই বিপর্যয় মোকাবেলা করতে 20টি মোকাবিলা বাহিনীর দল মোতায়ন করা হয়েছে।যার মধ্যে মুম্বইয়ে আটটি দল রয়েছে। যারা এই মুহূর্তে সমুদ্র উপকূল বরাবর অতন্দ্র পাহারায় নিযুক্ত রয়েছেন।

Related Articles

Close