ঘূর্ণিঝড় আমফানের ক্ষয়ক্ষতির সামাল দিতে রাজ্যকে 1000 কোটি টাকা সাহায্যের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির…

ঘূর্ণিঝড় আন্দোলনের জেরে বাংলায় যে বিপর্যস্ত হয়েছে তার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আজ রাজ্যে এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। যেখানে আজ প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার দিন দিল্লি থেকে বাংলায় উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন। আর বাংলায় পৌঁছাবার পর আকাশ পথের মাধ্যমে উত্তর ও দক্ষিণ 24 পরগনা তে সুপার সাইক্লোন আমফানের জেরে যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তার পরিস্থিতি পরিদর্শন করলেন। পরিদর্শন সম্পন্ন করে যখন তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তখন প্রধানমন্ত্রী জানালেন আমি সমস্ত এলাকায় ঘুরে দেখেছি।

আর বাংলার এরকম এক কঠিন সময়ে বাংলার পাশে থাকবে কেন্দ্র, এক্ষেত্রে বাংলা জানো আবারও ঘুরে দাঁড়াতে পারে তার জন্য দুটো ব্যবস্থা করা হবে যার জন্য ভারত সরকার বাংলা সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করবে। তবে এখানেই শেষ নয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানান,পশ্চিমবঙ্গ কে এক্ষেত্রে সবরকম সাহায্য দেওয়া হবে এর পাশাপাশি 1000 কোটি টাকা আর্থিক সাহায্য করা হবে এবং এই ঘূর্ণিঝড়ের দরুন প্রত্যেকে নিহত পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে দু লক্ষ টাকা করে এবং আহতদের পরিবারকে 50 হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

এর পাশাপাশি পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে কেন্দ্রের তরফ থেকে একটি দল পাঠানো হবে। যা কৃষি, বিদ্যৎ পরিষেবা খতিয়ে দেখবে। এই সময় গোটা দেশ বাংলার পাশে আছে। আপাতত 1000 হাজার কোটি টাকা আর্থিক প্যাকেজ দেওয়া হচ্ছে। আর যদি দেখা যায় ক্ষতির পরিমাণ আরও বেশি আছে, তাহলে এক্ষেত্রে আরও অর্থ দেওয়া হবে ভবিষ্যতে।” এইদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে হেলিকপ্টারে এলাকা পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। এরপরই বসিরহাটে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। যেখানে তিনি বারবার একথা আশ্বাস দিয়ে জানান আমরা ‘বাংলার পাশে আছি।