কোভিডে মৃত উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী, অযোধ্যা সফর বাতিল মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের..

সারা দেশজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। রাজনৈতিক নেতা থেকে শুরু করে অভিনেতারাও রেহাই পাচ্ছে না এই ভাইরাস থেকে।আজই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ট্যুইট করে জানিয়েছেন যে তিনি করোনা পজেটিভ। এই করোনা থেকে অনেকেই সুস্থ হয়ে যাচ্ছেন আবার অনেকেই হার মেনে যাচ্ছেন করোনার কাছে।গত 14 দিন আগে করোনা পজেটিভ হয়েছিলেন উত্তর প্রদেশের ক্যাবিনেট মন্ত্রী কমলরানী বরুন। লখনউয়ের এক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। রবিবার সকালে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। তার বয়স হয়েছিল 62 বছর।

এনার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সেখানকার প্রশাসনের সূত্রে খবর পাওয়া গেছে যে, গত 18 জুলাই লখনউয়ের সঞ্জয় গাঁধী পোস্টগ্র্যাজুয়েট মেডিক্যাল সায়েন্সেস ইনস্টিটিউট (এসজিপিজিআই) তে ভর্তি ছিলেন তিনি। এসজিপিজিআই এর ডিরেক্টর রাধাকৃষ্ণ ধীমান বলেন যে,” ফুসফুসের সংক্রমণের জন্য
কমলরানী বরুন এর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে শুরু করেছে। আমরা তাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য যাবতীয় চেষ্টা করেছিলাম কিন্তু সমস্ত প্রচেষ্টা করা সত্ত্বেও রবিবার মৃত্যু হয় তার।”

 

কমনরানী বরুন যোগী আদিত্যনাথ সরকারের কারিগরী দপ্তরের মন্ত্রী ছিলেন। কানপুরের ঘটমপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ছিলেন তিনি। তিনি রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন এই তার সাথে সমাজ সেবামূলক কাজে সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। এনার মৃত্যুর খবর শুনে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ তার পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেন। সম্প্রতি 5 ই আগস্ট অযোধ্যায় রাম মন্দিরের শিলান্যাস অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করার কথা ছিল যোগী আদিত্যনাথ এর। কিন্তু তিনি এই কর্মসূচি বাতিল করে দেন। যোগী আদিত্যনাথ টুইট করে কমলরানি বরুন এর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

এদিন তিনি টুইট করে লিখেন যে,” কমলরানি বরুন এর পরিবারের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা।গত কয়েকদিন ধরেই এসজিপিজিআই হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছিল। তিনি অনেক সমাজ সেবামূলক কাজ করেছেন। এছাড়া মন্ত্রিসভায় অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে নিজের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।”এনার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান। এদিন তিনি টুইট করে লিখেন,” উত্তরপ্রদেশের ক্যাবিনেট মন্ত্রীর এই অকাল মৃত্যুর খবর অনেক দুঃখজনক। ঈশ্বরের কাজে তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করি। তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।”