করোনা ভাইরাস টাকার নোট, মাক্সে কতদিন বেঁচে থাকে! নতুন গবেষণা প্রকাশ করে সাবধান বাণী দিচ্ছে হংকংয়ের চিকিৎসকেরা….

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে একের পর এক পদ্ধতি মেনে চলছেন দেশের সাধারণ মানুষ সহ সারা বিশ্ব। সমস্ত বিজ্ঞানীরা, চিকিৎসকেরা বলে যাচ্ছেন যে এই ভাইরাসকে ঠেকানোর জন্য একটাই রাস্তা যেটি হল সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। এবং খুব প্রয়োজন না হলে বাড়ির বাইরে বেরোতে মানা করা করা হয়েছে সবাইকে। মাক্স পরে ও হাতে গ্লাভস পরে বাইরে বের হচ্ছেন মানুষেরা। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানোর জন্য সরকারের তরফ থেকেও নানান ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে।

বর্তমানে কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে সারা দেশজুড়ে চলছে 21 দিনের লকডাউন। ঠিক এমন একটি পরিস্থিতিতে হংকং-এর বিজ্ঞানীদের এক গবেষণায় উঠে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য। এই গবেষণার ফলে ঠিক কোন কোন তথ্যগুলি উঠে এসেছে সেই সমস্ত বিষয়গুলি নিয়েই নিচে আলোচনা করা হলো –

1.সবার প্রথম টাকার নোটে কিংবা মাস্কে কত দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে এই মরন ভাইরাস– এই গবেষণার ফলে উঠে এসেছে যে, টাকার নোটে এক দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে এই করোনা ভাইরাস। এমন কী ব্যাংক থেকে আসা নতুন নোটেও এক দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে করোনা ভাইরাস।

আর মাক্সে এক সপ্তাহ পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে এই মরন ভাইরাস। তাই এনারা পরামর্শ দিয়েছেন যে মাক্স নিয়মিত পরিষ্কার করতে। এবং বাইরে থেকে এলে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা কোন জীবাণুনাশক দিয়ে ভালোভাবে হাত ধুতে।

2. এছাড়াও আরও একটি তথ্য এই গবেষণার ফলে উঠে এসেছে। যা হংকং-এর  বিজ্ঞানীরা গবেষণার পর জানিয়েছেন, কাপড়ে এই ভাইরাস সেভাবে বাঁচেনা। কিন্তু কাপড় ধুয়ে রাখা ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা আমাদের উচিত। গবেষকরা আরও জানিয়েছেন যে, সিজনড কাঠের সেভাবে বাঁচেনা করোনা ভাইরাস। তবুও নির্দিষ্ট সময় মতো আমাদের সবকিছু পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা দরকার।
3. হংকং-এর বিজ্ঞানীরা গবেষণার দ্বারা জানিয়েছেন যে কোন কোন ক্ষেত্রে করোনা ভাইরাস বাঁচে না। তাদের মতে, টাকার নোটে করোনাভাইরাস এক দিনের মতো বেঁচে থাকলেও টিস্যু পেপারে 3 ঘণ্টার বেশি বাঁচতে পারেনা করোনাভাইরাস। এমন কী প্রিন্টেড কোন কাগজেও 3 ঘণ্টার বেশি বাঁচতে পারে না COVID-19।

Related Articles

Close