করোনা Lockdown 2.0 : কারা পাচ্ছেন ই-পাস? কীভাবে করবেন এর জন্য আবেদন জানতে..

সারা বিশ্বজুড়ে এখন একটাই আতঙ্ক তা হল করোনা। সমস্ত দেশে এই কোরানার বিরুদ্ধে লড়ে যাচ্ছে লাগাতার। ভারতও এর থেকে আলাদা নয়। করোনা সংক্রমণ আটকানোর জন্য প্রথম দফায় প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী 21 দিনের লকডাউন ঘোষণা করেন। 21 দিনের লকডাউন আগামী 14 এপ্রিল শেষ হয়। এরপর পরিস্থিতি তেমনভাবে স্বাভাবিক হয়ে ওঠেনি ভারতে তাই লকডাউন আরও বাড়াতে বাধ্য হন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি। তাই গতকাল প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন এই লকডাউন 3 রা মে পর্যন্ত চলবে সারা দেশজুড়ে।

কোন এলাকায় কতটা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে সেই হিসেবে পরবর্তীকালে তুলে নেওয়া হতে পারে লকডাউনের কিছু বিধিনিষেধ আবার কোন কোন জায়গায় লকডাউন আরও কড়াকড়িও হতে পারে। আর তাই দেশের এমন একটি কঠিন পরিস্থিতিতে ঘরে থাকা এবং সোশ্যাল ডিস্ট্যান্স বজায় রাখাটাই একমাত্র করণীয়। তবে এখন এমন অনেকেই আছেন যারা জরুরী পরিষেবা সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। তাদের ক্ষেত্রে অবশ্য সরকারের তরফ থেকে ছাড় দেওয়া হয়েছে। যারা জরুরী পরিষেবা সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাদেরকে পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে একটি ই-পাশ দেওয়া হচ্ছে।

তবে কাদের এই ই-পাস দেওয়া হবে সেটাও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে সরকারের তরফ থেকে। সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, হেলথকেয়ার, পুলিশ, নিরাপত্তার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা, সংবাদমাধ্যম, বিদ্যুৎ ও জল দফতরের দপ্তরের কর্মীরা, কেমিস্ট এবং রেশন ব্যবস্থা সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা এই ই-পাস পাবেন। এবার আপনাদের জানিয়ে দেই যে কিভাবে এই ই-পাস পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে আপনার রাজ্যে বা শহরের সরকারি অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে( কলকাতার ক্ষেত্রে অফিশিয়াল ওয়েবসাইট টি হল- https://coronapass.kolkatapolice.org)। এরপর  ‘অ্যাপ্লাই ই-পাস’ অপশনে যেতে হবে। এরপর আপনাকে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে ফিলাপ করতে হবে। ওই ওয়েবসাইটে যে সমস্ত তথ্য গুলি চাইবে সেগুলি আপনাকে দিতে হবে এর পাশাপাশি একটি আবেদনপত্র আপলোড করতে হতে পারে প্রয়োজন পড়লে। এরপর প্রশাসনের তরফ থেকে যদি আপনাকে এই ই-পাশের অনুমতি দেওয়া হয় তাহলে আপনার মোবাইল নাম্বারে একটি মেসেজ দেওয়া হবে। এবার সেই ই-পাস আপনাকে প্রিন্ট আউট করে নিতে হবে। এবং ওই প্রিন্ট আউট নিয়ে আপনাকে বাড়ির বাইরে প্রয়োজন মত বেরোতে পারেন।