ছিল না বই কেনার টাকা, স্টেশনের ফ্রী WiFi দিয়ে পড়াশোনা করে কুলি পাস করল UPSC পরীক্ষা

এই পৃথিবীতে কোন কিছুই অসম্ভব নয়। যদি কঠিন সংকল্প থাকে এবং মনের ইচ্ছা থাকে তাহলে সবকিছু সম্ভব হয়ে যায়। আত্মত্যাগ এবং পরিশ্রমের দ্বারা এই জীবনে সব কিছু অর্জন করা সম্ভব। আজ আপনাদের পরিচয় করাব এমন একজন মানুষের সাথে যিনি তার অদম্য ইচ্ছার কারণে রাজ্য পাবলিক সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। কেরালা এরনাকুলাম রেলওয়ে স্টেশনে উপলব্ধ ওয়াইফাই সুবিধার সাহায্যে এই ব্যক্তি পড়াশোনা করেছিলেন দিনের পর দিন।

কেরালার মুল্লা এলাকার বাসিন্দা শ্রীনাথ। পড়াশোনা করার প্রতি তাঁর ছিল অগাধ আগ্রহ। তিনি কেরালা এরনাকুলাম রেলওয়ে স্টেশনে কুলি হিসেবে কাজ করতেন। তিনি তাঁর পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ছিলেন। ২০০৮ সালে ২৭ বছর বয়সে তিনি বুঝতে পেরেছিলেন, তিনি যে যৎসামান্য আয় করতেন তা তাঁর পরিবারের জন্য একেবারে যথেষ্ট নয়। বিশেষ করে তাঁর এক বছরের মেয়ের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তিনি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার চ্যালেঞ্জের সামনে দাঁড় করিয়ে দেন।

দিনের পাশাপাশি তিনি রাতেও তিনি উপার্জন করতে শুরু করেন। দৈনিক ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা আয় করতেন তিনি। এত কঠিন পরিশ্রম করার পরেও তিনি তাঁর পরিবারকে ভরণপোষণ করাতে পারছিলেন না ঠিক করে। একদিন হঠাৎ করেই তিনি সিভিল সার্ভিসের জন্য আবেদন করার কথা চিন্তা ভাবনা করেন। কিন্তু খরচ করে টিউশন ফি অথবা পড়াশোনার উপকরণ তিনি বহন করতে পারবেন না, তাই শুধুমাত্র ফোনের উপর নির্ভর করে তিনি সিভিল সার্ভিসের জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করলেন।


২০১৬ সালে সরকার মুম্বাই কেন্দ্রীয় রেলওয়ে স্টেশনে বিনামূল্যে ওয়াইফাই পরিষেবা সরবরাহ করেছিল। এই ওয়াইফাই পরিষেবা শ্রীনাথের উচ্চাকাঙ্ক্ষা অর্জন এবং সি এস সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার একটি দুর্দান্ত সুযোগ হিসেবে কাজে লেগেছিল। তবে সঙ্গী ছিল তার কঠিন পরিশ্রম এবং অদম্য ইচ্ছা। ফ্রি ওয়াইফাই এর সাহায্যে শ্রীনাথ রেলওয়ে স্টেশনে কাজ করার সাথে সাথেই অনলাইন বক্তৃতা শুনতে লাগলেন। বই এবং পড়াশুনার সামগ্রী কেনার জন্য অর্থ ব্যয় করার পরিবর্তে তিনি একটি স্মার্ট ফোন, একটি মেমোরি কার্ড এবং একজোড়া ইয়ারফোন কিনে ফেললেন। সঙ্গে ছিল বিনা মূল্যের ওয়াই-ফাই।শ্রীনাথের কঠোর পরিশ্রম এবং নিষ্ঠার মাধ্যমে তিনি কেরালা পাবলিক সার্ভিস কমিশন এর লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন এবং নিজের পরিবারের অসচ্ছল অবস্থা কাটিয়ে স্বচ্ছল অবস্থায় ফিরিয়ে আনেন।