গরিব মানুষের কথা ভেবে ভারতে করোনা টিকার দাম হবে 225 টাকা, সেরামের সঙ্গে চুক্তি বিল গেটসের সংস্থার..

শুধুমাত্র ভারতে নয় সারা বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ যেভাবে ছড়াচ্ছে তাতে ভ্যাকসিন তৈরীর কাজ দ্রুত গতিতে চলছে। এরই মধ্যে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার সঙ্গে চুক্তি করে বিল গেটসের সংস্থা বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন (Bill & Melinda Gates Foundation) ও আন্তর্জাতিক ভ্যাকসিন জোট গ্যাভি (GAVI) । এই চুক্তি অনুসারে জানা গিয়েছে যে, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও নোভাভ্যাক্সের করোনা ভ্যাকসিন তৈরি করার অনুমোদন পাওয়ার পরেই মোট 100 মিলিয়ন ডোজ অর্থাৎ 100 কোটি ডোজ তৈরি করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সরবরাহ করবে সিরাম ইনস্টিটিউট।

এর জন্য বিলগেটসের সংস্থা সিরাম ইনস্টিটিউটকে 150 মিলিয়ন ডলার দিয়েছে। সিরাম ইনস্টিটিউট এর সাথে এইরকম চুক্তি করার একটাই উদ্দেশ্য যেটা হল,‌করোনার ভ্যাকসিন যাতে গরিব মানুষের কাছে সস্তায় পৌঁছাতে পারে। রিপোর্ট অনুসারে জানা গিয়েছে, এই ভ্যাকসিন এর প্রত্যেকটি ডোজের দাম 3 ডলার হবে যা ভারতীয় মুদ্রায় 225 টাকা। এবং এই চুক্তি অনুসারে ভারত ছাড়াও আরো মোট 93 টি দেশে এই ভ্যাকসিন পৌঁছে দেওয়ার কথা রয়েছে সিরাম ইনস্টিটিউটের তরফ থেকে। এর জন্য 100 কোটি ভ্যাকসিন তৈরীর কথা রয়েছে।

এই ভ্যাকসিন তৈরি করার জন্য বিল গেটসের সংস্থা বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন 15 কোটি ডলার দিচ্ছে সিরাম ইনস্টিটিউটকে। সাধারণ মানুষের কথা ভেবে বিল গেটসের এই সাহায্যকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন খোদ সিরাম ইনস্টিটিউট এর কর্ণধার আদর পুনাওয়ালা।এই নিয়ে শুক্রবার তিনি এ বিষয়ে ট্যুইট করে জানিয়েছেন যে, 10 কোটি ভ্যাকসিন বানানোর জন্য এই চুক্তি দ্রুত করা হয়েছে। এবং এর কাজ বেশ দ্রুতগতিতে চলছে। এবং ভ্যাকসিনের দাম যতটা সম্ভব কম রাখা হবে যাতে গরিব মানুষের নাগালের মধ্যে থাকে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফ থেকে এই ভ্যাকসিন বাজারে ছাড়ার অনুমতি পাওয়া গেলে তা ছেড়ে দেওয়া হবে বাজারে। এছাড়াও জানা গিয়েছে এই করোনার ভ্যাকসিন কোভ্যাক্স পদ্ধতিতে দেওয়া হবে সাধারণ মানুষকে। বিশ্বের প্রত্যেকটি দেশ যাতে এই ভ্যাকসিন পায় তার জন্য এই পদ্ধতি আনা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button