এবার নরেন্দ্র মোদীকে সরাতে পাকিস্তানের কাছে সাহায্যে চেয়েছে কংগ্রেস: বক্তব্য নির্মলা সীতারমণের।

আজকে যে নিউজটি আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি সেটা আপনার জানা অবশ্যই প্রয়োজন। বহু বছর ধরেই ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে একটা দ্বন্দ্ব লেগেই রয়েছে । শুধু তাই নয়, সব সময় ভারতকে পাকিস্তান টেনে নিচে নামানোর চেষ্টা করেছে, তবে এটা বললে কম হবে যে, আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মোদির উদ্যোগে আজ পাকিস্তান কোণঠাসা হয়ে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে পাকিস্তান থেকে আগত জালি নোটের জালিয়াতি হ্রাস পেয়েছে। যেখানে লোকসভা ভোটের দিন ঘনিয়ে আসছে সেখানে শেষে ” প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সরানোর জন্য পাকিস্তানের কাছে সাহায্য চাইল কংগ্রেস শিবির”-এমনটাই মন্তব্য করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

আর প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর এই বক্তব্যের কারণেই রাজনৈতিক মহলে এক চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। তার সাথে কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও এই প্রসঙ্গকে ঘিরে নানা রকম বক্তব্য উঠে আসছে। আর প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন এই বক্তব্যকে হাতিয়ার করে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন। গত শনিবার ছিল ন্যাশনাল কনফারেন্সের শেষ দিন, আর এই দিনটিতেই এই বক্তব্য রাখলেন। তিনি কংগ্রেসকে কটাক্ষ করে বলেন,”সারাবিশ্ব এখন পাকিস্তানকে এক কোণঠাসা করে দিয়েছে। এটা সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দৌলতে । কারণ তিনি ভারতের অনেক বিদেশী দেশের সাথে ভালো সম্পর্ক গড়ে তুলেছেন। এছাড়াও, ভারতীয় সেনা পাকিস্তানকে ভালোভাবে জব্দ করে রেখেছে”।

শুধু তাই নয় , এই দিনটিতে তিনি আরো বলেছেন, “মোদির সময়কালীন ভারতে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়েছে , আর বিরোধীরা তার প্রমান চাইছে। আবার কিছু কিছু কংগ্রেস নেতা পাকিস্তানে গিয়ে সাহায্য চেয়ে এসেছেন, এই জঘন্য রাজনীতি কংগ্রেসি পারে”। তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দেন, খুব শিগগির মধ্যে লোকসভা ভোটের প্রচারের জন্য সমস্ত দল কর্মীকে ঝাপিয়ে পড়তে হবে এর সাথে সমাজের উন্নয়নমূলক কাজ সংগঠিত করতে হবে। বিগত পাঁচ বছরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভারতকে দুর্নীতি মুক্ত করার লক্ষ্যে যে সংকলন তিনি নিয়েছিলেন সেটিকে আরো ভালোভাবে জনগণের মধ্যে প্রচার করতে হবে।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের সব থেকে বড় দাবী, এই মোদির পাঁচ বছরের রাজত্বকালে ভারতের ওপর একটাও জঙ্গি হামলা হয়নি। যদিও এ কথা কে ব্যঙ্গ করে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে প্রশ্ন উঠে এসেছে,” উড়ি ও পাঠানকোট হামলা তাহলে কবে হয়েছিল ?”তার সাথে মোদি সরকারের বিরোধিতায় রাফায়েল চুক্তিকে নিয়ে কটাক্ষ করেছে কংগ্রেস । তবে এ বিষয়ে আপনাদের কি মতামত তা আমাদের অবশ্যই জানাবেন। আগামী প্রধানমন্ত্রী হিসাবে আপনারা কাকে বেছে নিতে চাইছেন তাও আমাদের জানাতে ভুলবেন না। খবরটি ভালো লেগে থাকলে আপনাদের সাথে শেয়ার করুন।

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close