আবারো চীনের ভয়ানক পরিকল্পনা প্রকাশ্যে! আগামী কিছু বছরের মধ্যেই গ্ৰাস করবে আরো দুটি দেশকে

যে দেশটির নাম শুনলেই প্রথমেই নেতিবাচক চিন্তা আমাদের প্রত্যেকের মনে আসে,আর সেই দেশটি হল চীন। যার নিজের আধিপত্য বিস্তারের জন্য অন্যকে দমিয়ে রাখার প্রবণতা অত্যন্ত বেশি। সমস্ত পৃথিবীতে একছত্র ভাবে রাজত্ব করতে চায় এই দেশ। আর এমনই ভয়ানক ইঙ্গিত দিয়েছে এই দেশ। চীনের এই ভয়ানক ইঙ্গিতকে সীলমোহর দিয়েছে চীনা মুখপাত্র সোহু। চীনের প্রকাশিত রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে ২০৪০ সালের মধ্যে অরুণাচল প্রদেশ সম্পূর্ণরূপে নিজের আয়ত্তে আনতে চায় চীন।

জিংপিং-এর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা অনুসারে ২০২৫ সালের মধ্যে সমগ্র তাইওয়ান নিজেদের দখলে আনবে চীন। প্রথম থেকেই তাইওয়ান এর উপর নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে চীন কিন্তু তাইওয়ান বরাবরই চীনের বিরোধিতা করছে।এছাড়াও ২০২৫ সালের মধ্যে দক্ষিণ চীন সাগর কে সংযুক্ত করার পরিকল্পনা নিয়েছে চীন। অর্থাৎ চীন ২০৩০ সালের মধ্যে সম্পূর্ণ দক্ষিণ চীন সাগর কে নিজের দখলে নিয়ে নিতে পারে।

আর এই ভাবেই চীনের পরবর্তী টার্গেট ভারত, নজরে অরুণাচল প্রদেশ। চীন বরাবরই ভারতের উপর তার আধিপত্য বিস্তার করতে চেয়েছে। ভারতের অরুণাচল প্রদেশকে দক্ষিণ তিব্বত বলে দাবি করেছে চীন। চীনের পরিকল্পনা ২০৩৫ থেকে ২০৪০ সালের মধ্যে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে এক ভয়াবহ যুদ্ধের পরিস্থিতি তৈরী করা এবং সেই সময় অরুণাচল প্রদেশ দখল করা এবং পরবর্তীতে এই অংশ নিজেদের বলে দাবি করা।

চীনের পরবর্তী পরিকল্পনায় রয়েছে, ২০৪৫ সালের ভেতরে সেনকাকু দ্বীপপুঞ্জ, ২০৫০ সালের মধ্যে মঙ্গোলিয়া ও ২০২০ সাল শেষের আগেই ১৯ শতকের যুদ্ধে রাশিয়ার কাছে হেরে যে অঞ্চলগুলো হারিয়েছিল সেগুলো দখল করা। চীনের নজরে রয়েছে এশিয়া মহাদেশের ছোট ছোট দেশগুলোর ওপর আধিপত্য বিস্তার করা। ভবিষ্যতে চীন বিশ্বের কাছে অন্যতম আতঙ্ক হয়ে উঠতে চলেছে তা চীনের এই ঘোষণা থেকেই বোঝা যাচ্ছে।