প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর নথি, ৫ বছর আগেই করোনাকে ‘জৈব অস্ত্র’ হিসাবে ব্যবহার করার ছক কষেছিল চীন

বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারী মানুষের মনে চূড়ান্ত ভয় আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে ।তবে এই অতিমারীর পিছনে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ হাত রয়েছে চীনের এমন অভিযোগ বারবার উঠে এসেছে।  যদিও তাঁর কোনও সঠিক প্রমাণ এখনো পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। এবং চীন বারবার এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।কিন্তু এবার যে নথি প্রকাশ্যে এসেছে তাতে চীনের অনেক গোপন পরিকল্পনা ফাঁস হয়ে যাচ্ছে।

দাবি করা হচ্ছে চীনের সামরিক বিজ্ঞানীরা নাকি 2015 সালেই সার্চ করোনাভাইরাস কে জৈব অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করার জন্য নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেছিলেন। চীনের এক শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞানী এই তথ্য প্রকাশ করেছেন।  লি মেং ইয়ান নামের ওই চীনা বিজ্ঞানীর দাবি কে কেন্দ্র করে গোটা বিশ্বে তোলপাড় শুরু হয়েছে। চীনা ভাষায় লেখা কিছু নথিপত্র ইংরেজিতে অনুবাদ করে তিনি টুইট করেছেন।

দারুন সুখবর! এই করোনা মহামারীর মধ্যেও একাধিক ব্যাঙ্কের FD তে মিলছে ৭ পার্সেন্ট পর্যন্ত সুদ, তাই দেরি না করে

সেখানে লেখা রয়েছে সার্স কোভ টু ভাইরাস চীনের সরকারি গবেষণাগারে তৈরি ।চীনের সামরিক বিভাগের বিজ্ঞানীরা এই ভাইরাসকে জৈব হাতিয়ার রূপে ব্যবহার করার বিষয়ে দীর্ঘ আলোচনা করেছেন ।এই জৈব অস্ত্র দিয়েই নাকি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের লড়াই হব…এমন আলোচনার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে ।2015 সালে যখন এই আলোচনা করা হয় তখন করোনা সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রভাব তো দূরস্থান কেউ এই মহামারীর কথা ভাবি নি। তার প্রায় 5 বছর পর বিশ্বজুড়ে শুরু হয়ে গেছে করোনা মহামারী তান্ডব ।

এই ভাইরাসের জিন ইচ্ছামত পরিবর্তন করে মানব শরীরে ঘাতক অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। এই নথি প্রকাশ্যে আসার পরই চীনের তরফে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হয়েছে কিন্তু তাদের তরফ  কোনো প্রতিক্রিয়া মেলেনি। যে অভিযোগ এতদিন  চীন এড়িয়ে গিয়েছে, এই নথি প্রকাশ্যে আসার পর চীনের তরফে কি উত্তর আসে সেটাই এখন দেখার।