কলকাতানতুন খবরবিশেষরাজ্য

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বড় ঘোষণা! এবার প্রত্যেক মেডিকেলে স্টাফদের জন্য পাঁচ লাখ টাকার বীমার সাথে…

এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করোনাভাইরাস মোকাবেলায় নামা রাজ্যের স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্য বড়সড় ঘোষণা করলেন।এই দিন তিনি রাজ্যের 10 লাখ মেডিকেল স্টাফদের জন্য প্রতি মাথাপিছু 5 লাখ টাকা করে বীমা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।আর এই বীমা আগামী 15 এপ্রিল পর্যন্ত করা হবে, আজ বিকালে নবান্নের সভা ঘরে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ গুলির সঙ্গে জরুরি বৈঠকে বসেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই বিষয় নিয়ে।

আর এই দিন কেন্দ্রের দিকে পাল্টা তোপ দেগে বললেন রাজ্যে করোনা ভাইরাস মোকাবিলাতে কেন্দ্রের তরফ থেকে ঠিকমতো সাহায্য মিলছে না। আর এরকম এক পরিস্থিতিতে ব্যবসায় লাভ না খুঁজে পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে সকলকে সহযোগিতা করার নির্দেশ দেন তিনি।এইদিন বৈঠকের পর তিনি জানান আপাতত আর্জি করে 50 বেডের আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি করা হবে এখন ব্যবসা করার সময় নয় এখন এরকম এক কঠিন পরিস্থিতিতে সবাইকে পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে হবে।

তারই সাথে জানান বেলেঘাটা আইডিতে চাপ বাড়ছে সেখানে 100 টি বেড করা হবে। এবং তারই সাথে এদিন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সকলকে আতঙ্কিত না হওয়ার বার্তা দেন এবং আগামী দুই সপ্তাহের জন্য আরো একটু বেশি সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন। তারই সাথে সমস্ত হাসপাতালকে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ তৈরি করার নির্দেশ দিয়েছেন, ইতিমধ্যে তিনশটি ভেন্টিলেশন মেশিন এর অর্ডার দেওয়া হয়েছে আর অন্যদিকে বাঙ্গুর হাসপাতালে 150 বেডের আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি করা হচ্ছে এ কথাও জানান তিনি।

প্রয়োজনে সরকারের তরফ থেকে আরও উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে দরকার পড়লে সরকার অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করবে এবং বেলেঘাটা আইডি তে দশটি ও অন্যান্য হাসপাতালের পাঁচটি করে প্রয়োজনীয় অ্যাম্বুলেন্স রাখার পরামর্শ দেন।তার সাথে হাসপাতালের চিকিৎসক সহ সকল নার্স কর্মীদের মাক্স পড়া বাধ্যতামূলক এ কথাও জানান তিনি কারণ তাদের স্বাস্থ্যও অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

অন্যদিকে পুলিশকে পরামর্শ দেন যারা গুজব রটিয়ে বাজারে জিনিসের দাম বাড়িয়ে ব্যবসা শুরু করে দিয়েছেন এরকম এক পরিস্থিতিতে তাদের ওপর নজর দিতে। তার সাথে কেন্দ্রের দিকে নিশানা তেগে জানান কেন্দ্রের তরফ থেকে প্রয়োজনীয় করোনা কীট রাজ্যে এখনো পাঠানো হয়নি কেন্দ্র গাইডলাইন ও পাঠাচ্ছে না। তবে রাজ্যে তরফ থেকে দু লাখ মাক্স ও 30 হাজার হ্যান্ড গ্লাভস এর ব্যবস্থা করা হয়েছে আর 10000 থার্মাল গানের অর্ডার দেওয়া হয়েছে আরো 10 হাজার থার্মাল গান অর্ডার দেওয়া হবে ভবিষ্যতে। এইদিন বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখার পাশাপাশি শিশুদের বাড়িতে যাতে পৌঁছে যায় মিড ডে মিলের খাবার।

Related Articles

Back to top button