হাওড়াতে ১ লাখ ১৬ হাজার নতুন কর্মসংস্থানের পথ দেখালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

গত বৃহস্পতিবার হাওড়া আয়োজিত হয় এক প্রশাসনিক বৈঠক। সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বহু শিল্পপতি, জনপ্রতিনিধি এবং পুলিশ অধিকারী। আর তাদের সঙ্গে কথা বলে মমতা ব্যানার্জি। আর সেখানেই তিনি প্রস্তাব রাখেন কাশফুল দিয়ে শিল্প তৈরীর পাশাপাশি একাধিক শিল্প ও কর্মসংস্থানের খবর। আর থাকছে হাওড়া বাসীর জন্য থাকছে আরো সুখবর। সেই জেলায় হবে প্রচুর কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে বিনিয়োগ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই দিন ঘোষণা করেন, “হাওড়া একাধিক ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরি করা হবে।

আগামী দুই বছরে সম্ভাব্য বিনিয়োগ আসতে চলেছে ১০ হাজার ৪৮ ০কোটি টাকা আর সেই সঙ্গেই হবে কর্মসংস্থানের সুযোগ ১ লাখ ১৬ হাজার মানুষের।হাওড়াতে শিল্পে বিনিয়োগের ফলে রাজ্যে বিপুল কর্মসংস্থান হতে চলেছে, এই আশা দেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “জমি নিয়ে যাতে শিল্পপতিদের কোনও সমস্যায় না পড়তে হয় সেদিকে বিশেষ নজর রাখতে হবে।” এদিন জেলায় ৬০টি সুসস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

হাওড়া রাজ্যে ২২৩ সুস্বাস্থ্য কেন্দ্র চালু করার জন্য নয়া উদ্যোগ করা হয়েছে রাজ্যের তরফ থেকে। আর এর জন্য অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে ১৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। আর হাওড়াতে আগে থেকেই সুস্বাস্থ্য কেন্দ্র রয়েছে ৪৪৮ টি। এদিকে হাওড়াতে চালু করা হচ্ছে প্রাইমারি এগ্রিকালচার কো-অপারেটিভ সোসাইটি কাস্টমার সার্ভিস পয়েন্ট। আগামী দুই বছরে আসতে চলেছে ১৬২টি নয়া উদ্যোগ। এর জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ২ হাজার ৬৫৩ কোটি টাকা। হাওড়া ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরি হলে বহু মানুষ কাজ পাবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাঁচ বছরের মধ্যে হাওড়ায় এই শিল্পপার্কের কাজ শেষ হবে বলে জানান।এছাড়া মৎস্যজীবীদের জন্য ক্রেডিট কার্ড চালু হবে বলে জানান তিনি।

পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, “১০০ দিনের কাজের টাকা যাতে সকলে পান সেদিকে নজর দিতে হবে।” এদিন শিল্পপতিদের রাজ্য শিল্প সম্মেলনের জন্য আমন্ত্রণ জানান তিনি।মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর বক্তব্যে ভূমি দপ্তর এর ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। আর এও বলেছেন, শিল্পপতিদের যাতে জমি পেতে অসুবিধা না হয় সেদিকে নজর রাখতে। আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যেই চালু হচ্ছে ‘বাংলা ডেয়ারি’। যার মাধ্যমে পাওয়া যাবে ঘি, প্যারা, লস্যি।