ভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়া শ্রমিকদের জন্য মানবিক হওয়ার সাথে সাথে পকেটমানির ঘোষণা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর

দেশে করোনা সংক্রমণ আটকানোর জন্য 24 শে মার্চ এর পরের দিন থেকেই সারাদেশে লকডাউন ঘোষণা করে দেওয়া হয়। ফলে বিভিন্ন রাজ্যে কাজ করতে যাওয়া বাংলার শ্রমিক আটকে পড়ে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনের তরফ থেকে তাদের জন্য রেশনের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়। তবে এই সমস্ত আটকা পড়া শ্রমিকদের নগদ টাকার অভাব দেখা দেয় কারণ, এই মুহূর্তে যেহেতু কাজ বন্ধ তাই তাদের হাতে টাকা পয়সা নেই। আর তাদের কথা ভেবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি বড় ঘোষণা করলেন।

তিনি বলেন আটকে পড়া শ্রমিকদের কাছে পকেটমানি পাঠানো হবে। এদিন নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন যে, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তার ফোনে কথা হয়েছে এ বিষয়ে। মঙ্গলবার বিকেলে বান্দ্রায় বাড়ি ফিরতে যাওয়ার জন্য বিশাল জমায়েত হয়েছিল পরিযায়ী শ্রমিকদের। সেই জমায়েতে বিহার, উত্তর প্রদেশ সহ বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকরাও ছিলেন। এবং তিনি সবার সঙ্গে সহযোগিতা করে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানান।

এর আগে মহারাষ্ট্রে আটকে পড়া 87 জন পরিযায়ী শ্রমিক সোশ্যাল মিডিয়ার সামনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে সাহায্যের আবেদন করেন। সঙ্গে সঙ্গে এই ভিডিওটি পৌঁছে যায় তৃণমূল নেতৃত্বের কাছে। এরপরে তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন জানিয়েছেন, আটকে পড়া শ্রমিকদের জন্য খাবার ও বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এরপরে মুখ্যমন্ত্রী জানান কয়েকজন আটকে পড়া বাংলার শ্রমিকদের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে। এবং তারা রেশন পাওয়ার কথাও জানান মুখ্যমন্ত্রী কে।

কিন্তু হাতে নগদ টাকার অভাব রয়েছে তাদের। এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বর্তমানে এখান থেকে টাকা পাঠানো কঠিন কিন্তু ওখানকার কোন সংযোগের মাধ্যমে টাকা পাঠানো যায় কিনা তার চেষ্টা করছি। এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীও বলেন, দরকার পড়লে তিনি অন্যান্য শ্রমিকদের সঙ্গেও কথা বলবেন। মুখ্যমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, শুধুমাত্র শ্রমিকরা নন, বেড়াতে যাওয়া অনেকেই, বহু চিকিৎসকও আটকে পড়েছেন বিভিন্ন জায়গায়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, আমাদের সরকার গরিবের সরকার। যতটা সম্ভব সাহায্য করব। গত কয়েকদিন আগে 18 টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কে চিঠি লিখেন পশ্চিমবাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই চিঠিতে আটকে পড়া শ্রমিকদের দেখাশুনার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।

Related Articles

Close