Skip to content

ব্রেকিং খবর- চাঁদের বুকে অক্ষত অবস্থায় রয়েছে চন্দ্রযান 2 এর ল্যান্ডার বিক্রম,জানালেন ইসরো আধিকারিক

গতকাল রবিবার দিন ইসরোর বিজ্ঞানীরা অর্বিটারের মাধ্যমে খোঁজ পান চন্দ্রযান 2 এর ল্যান্ডার বিক্রমের।আর তারপর থেকেই বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করার অনবরত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল ইসরোর বিজ্ঞানীরা।অবশেষে ইসরোর বিজ্ঞানী সহ সারাদেশ জুড়ে এলো নতুন সুখবর। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া বিবৃতিতে এক ইসরো আধিকারিক জানান,  চাঁদের বুকে অক্ষত অবস্থায় রয়েছে বিক্রম। তিনি জানান চাঁদের বুকে হার্ড ল্যান্ডিং করেছে চন্দ্রযান-2-এর ল্যান্ডার।

তবে বিশেষ ক্ষয়ক্ষতি হয়নি এর ফলে। তবে হার্ড ল্যান্ডিংয়ের সময় বিক্রমের বড়োসড়ো ক্ষয়ক্ষতির আশংকা করেছিল অনেকেই। অবশেষে সেই আশংকা মিথ্যে প্রমাণিত হলো এবং ইসরো বিজ্ঞানীসহ দেশবাসীর মধ্যে ছেড়ে এল খুশির মহল। সমস্ত আশঙ্কা মিথ্যে প্রমাণিত করে অক্ষত অবস্থায় পাওয়া গেল চন্দ্রযান-2-এর ল্যান্ডার। অর্বিটারের প্রেরিত ছবি অনুযায়ী একটি মূল অংশেই রয়েছে বিক্রম। ভেঙে টুকরো হয়নি ল্যান্ডারের কোনও অংশ। তবে এখনও বিক্রমের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করা যায়নি।


সেই চেষ্টাতেই এখন মরিয়া হয়ে উঠেছে ইসরোর বিজ্ঞানীরা। ইসরোর বিজ্ঞানীদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যোগাযোগ স্থাপিত হলেই বিক্রমের সঙ্গে কি কারণবশত যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছিল তা জানানো যাবে।ঠিক কী ঘটেছিল ল্যান্ডিংয়ের সময়ে, জানা যাবে ল্যান্ডারের তথ্য বিশ্লেষণ করেই। রবিবার ডঃ শিবন জানিয়েছেন, শীঘ্রই বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপিত করা যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত বিক্রমের খোঁজে চন্দ্রযান-এর অর্বিটারকেই ব্যবহার করেছিলেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা।

অর্বিটারের মাধ্যমে পাঠানো থার্মাল ছবি থেকেই সন্ধান মিলে বিক্রমের।আসা ছবি থেকে চন্দ্রপৃষ্ঠে বিক্রমের অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারা যায়।পরে সেই ছবি ভালোভাবে বিশ্লেষণ করার পর বিজ্ঞানীরা জানান ছবি থেকে মনে হচ্ছে চাঁদে হার্ড ল্যান্ডিংয়ের পরেও ভেঙে পড়েনি বিক্রম। যদিও এখনও বিক্রমের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করা স্থাপন করা যায়নি বলে জানা গিয়েছে। আপাতত বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের চেষ্টা চলছে। বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব হলেই তবেই মিলবে আরো জরুরি তথ্য।