সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে গেরুয়া শিবির ত্যাগ করে ঘাসফুলে যোগদান চাণক্য মুকুল রায়ের

প্রায় সাড়ে তিন বছর পর ঘরের ছেলে ঘরে ফিরলেন। ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন মুকুল রায়। আর আজ ১১ জুন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করলেন মুকুল রায়। সাথে আছে মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু রায়ও। শুক্রবার তৃণমূল ভবনে তাঁর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা ব্যানার্জি তাঁকে ‘ঘরের ছেলে’ বলে আখ্যায়িত করেন।

 

এই ৬৭ বছর বয়সে মুকুল রায়ের জীবনে আবারও রাজনৈতিক কেরিয়্যারে নতুন দিগন্তের সংসার হল। সালটা ছিল ২০১৬। বিধানসভা নির্বাচনের আগে নারদ স্টিং অপারেশনের ভিডিওতে তৃণমূলের অন্যান্য নেতা-মন্ত্রীদের সাথে মুকুল রায়কেও উপস্থিত থাকতে দেখা গিয়েছিল। তা নিয়ে তোলপাড় হয়ে ওঠে বঙ্গ রাজনীতি, কিন্তু নির্বাচনের ফলাফলে দেখা যায় নারোদা কান্ডের ঘটনায় কোনো ছাপ ফেলতে পারেনি ভোটের ফলাফলে।

তারপর থেকেই মুকুল রায় এবং শুভেন্দু অধিকারীর উপর চাপ বাড়তে থাকে। আর সেই কারণেই কিছুদিন পর অর্থাৎ ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে দলবদল করেন মুকুল রায়। তারপর প্রায় বছর খানেক পর শুভ্রাংশু রায়ও বিজেপিতে যোগদান করেন। আজ শুক্রবার ১১ জুন বিকালের দিকে তৃণমূল ভবনে আনুষ্ঠানিক বৈঠকের মাধ্যমে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন মুকুল রায়। তার হাতে দলীয় পতাকা এবং উত্তরীয় পরিয়ে দেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জি। তৃণমূলে যোগদানের পর মুকুল রায় বলেছেন ”বিজেপি থেকে বেরিয়ে খুব ভাল লাগছে।

নতুন আঙিনায় এসেছি, পুরনো সহকর্মীদের সঙ্গে দেখা হচ্ছে, কথা হচ্ছে। আর এটা ভেবে ভাল লাগছে, বাংলা আবার তার নিজের জায়গায় ফিরবে। সামনে থেকে নেতৃত্ব দেবেন মমতা।”কিছুদিন আগে মুকুল রায়ের স্ত্রী অসুস্থ হওয়ায় তাঁকে দেখতে নার্সিংহোমে হাজির হয়েছিলেন অভিষেক ব্যানার্জি। সেখানে মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশু রায়ের সাথে অভিষেক ব্যানার্জির সৌজন্য ঘটে। তারপর থেকেই জল্পনা উঠে যে মুকুল রায় নাকি তৃণমূলের ফিরতে চলেছেন। আজ সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে তিনি তৃণমূলে যোগদান করেন।