ভারতের এক সিদ্ধান্তে মাথায় হাত চীনের, কোটি কোটি টাকা জলে যাবে বেজিংয়ের

সকলকে হারিয়ে উপরে উঠতে চেয়েছিল চীন, কিন্তু এবার সেই অপরাধের শাস্তি ভোগ করতে হচ্ছে তাকে। শুধুমাত্র ভারতবর্ষ নয়,বিশ্বের একাধিক দেশকে সবদিক থেকে চাপে ফেলার চেষ্টা করছে ক্রমাগত। আমরা সকলেই জানি, লাদাখ সীমান্তে চীনের সঙ্গে ভারতবর্ষের যুদ্ধ ঘোষণা হবার পর থেকেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভারতবর্ষের প্রত্যেক মানুষকে স্বনির্ভর হতে বলেছিলেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে ভারতবর্ষের প্রত্যেক নাগরিক চীনের দ্রব্য বর্জন করার জন্য তৎপর হোন।

এবার ভারতবর্ষে পাঁচ বছরের জন্য পাঁচটি চিনা পণ্যের উপর অ্যান্টি ডাম্পিং শুল্ক আরোপ করতে চলেছে। বেসরকারি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভারত যে পাঁচটি পণ্যের ওপর পাঁচ বছরের জন্য অ্যান্টি ডাম্পিং শুল্ক আরোপ করবে সেগুলি হল,কিছু অ্যালমনিয়াম এবং কিছু রাসায়নিক পণ্য। জানা গেছে, স্থানীয় নির্মাতাদের চীনের সস্তা আমদানি থেকে বাঁচাতে কেন্দ্রীয় সরকার এই পদক্ষেপ নিতে চলেছেন।

সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ইনডাইরেক্ট ট্যাক্সেস অন্ড কাস্টমস এর একটি পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অ্যালুমিনিয়াম, সোডিয়াম হাইড্রোসালফাইট, সিলিকন সিলান্ট হাইড্রোফ্লুরোকার্বন (HFC) R-32 এবং হাইড্রোফ্লুরোকার্বন মিশ্রণের কিছু পণ্যের উপর নতুন শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। এই পণ্যগুলি তাপবিদ্যুৎ, সৌর শক্তি, রেফ্রিজারেশন এবং রঞ্জক শিল্পের মতো অনেক শিল্পে ব্যবহৃত হয়।

এই প্রসঙ্গে সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ইনডাইরেক্ট ট্যাক্সেস অফ কাস্টমস বলেছেন, এই বিজ্ঞপ্তির অধীনে আরোপিত অ্যান্টি ডাম্পিং শুল্ক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের তারিখ থেকে আগামী পাঁচ বছরের জন্য ধার্য করা হবে। সস্তা চিনা আমদানি থেকে দেশীয় নির্মাতাদের রক্ষা করার জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ভারতের এই সিদ্ধান্তে নির্মাতারা যেমন বেঁচে যাবেন ক্ষতির হাত থেকে তেমন অন্যদিকে চীন কোটি কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হবে।