কেন্দ্র সরকারের তরফে ডাইভিং লাইসেন্সে আসতে চলেছে বড়োসড়ো পরিবর্তন! এবার থেকে

সমস্ত ব্যাক্তি যারা যেকোনো ধরনের যানবাহন ব্যাবহার করেন তাদের ক্ষেত্রে ড্রাইভিং লাইসেন্স ও RC পেপার (রেজিষ্ট্রেশন সার্টিফিকেট) এর সাথে যুক্ত এই বার এক বড়ো পরিবর্তন আনবে দেশের রাজধানীর দিল্লি সরকার। এর আগেও দেখা গেছে অনেক ক্ষেত্রে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর উপর মাইক্রো চিপ জাতীয় জিনিস এর ব্যবহার করার নিয়ম ছিল দিল্লি রাজ্যের পরিবহন বিভাগ সংস্থা এর তরফ থেকে। কিন্তু RTO বিভাগের নানা আধিকারিকদের সাথে পর্যাপ্ত পরিমাণে দরকারি রিডিং মেশিন না থাকার কারণে সেই মাইক্রো চিপ গুলো রিড করার সময় তৈরি হতো নানান রকমের সমস্যা।এবার তাই এই রকমের সব সমস্যা এর থেকে ছাড় পেতে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর সাথে যুক্ত এক বড়ো মাপের পরিবর্তন করলো কেন্দ্র সরকার। এই কথা ঘোষণা করে জানানো হয়েছে দিল্লি রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রালয় এর তরফ থেকে। সেই রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রালয় এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, এই বার যে নতুন ধরনের ড্রাইভিং লাইসেন্স এর কার্ড বানানো হচ্ছে দিল্লি সরকার এর তরফ থেকে। সেটি থেকে খুব সহজ উপায়েই পাওয়া যাবে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর অধিপতির সেই গাড়ি এর ব্যাপারে সব ১০ বছরের সমস্ত ডেটা বেস।

এর মানে একবার যদি সেই ড্রাইভিং লাইসেন্স টি কে বাজেয়াপ্ত করেন কোনো ট্রাফিক পুলিশ অথবা কোনো পরিবহণ দপ্তর এর কোনো অধিকারী, তাহলেই জানা যাবে সেই ব্যাক্তির সমস্ত জরিমানা সংক্রান্ত তথ্য। এটি ছাড়াও নতুন এই ড্রাইভিং লাইসেন্স এর সাহায্যে একজন ট্রাফিক পুলিশ অথবা পরিবহণ সংস্থা এর অফিসার সহজেই চালকের সমস্ত রেকর্ড, যানবাহনের উপর করা যে কোনো ধরনের পরিবর্তন, নির্গমন নিয়ম এর বিষয়েও সমস্ত তথ্যও সহজ ভাবেই পেয়ে যাবে সরকার।

সহজ ভাবে বলে দেওয়া যাক, আসলে দিল্লি সরকার ও তার পরিবহন সংস্থা এটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, সমস্ত ড্রাইভিং লাইসেন্স ও আরসি(রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট) এর জন্য স্মার্ট কার্ড সিস্টেম আরম্ভ করবে তারা। এই নতুন ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড এর সামনে তার অধিপতি মালিকের নাম লেখা থাকবে।তারই সাথে, সেই কার্ডটির পিছনে থাকবে একটি মাইক্রো চিপ ও সাথে একটি কিউ আর কোড (QR Code) একটি বিশেষ চিহ্ন কালো সাদা রং এ কার্ডের মধ্যে খোদাই করা থাকবে, যেটি কে মেশিনে দেখলেই সেই ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড এর অধিপতির সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য দেখিয়ে দেবে।

দিল্লি সরকার এর ট্রাফিক পুলিশ দপ্তর ও তার সাথে পরিবহন দপ্তর এর এনফোর্সমেন্ট শাখা এই মাইক্রো চিপ ও কিউ আর কোড (QR Code) এর সাহায্যে সহজ উপায়ে সেই কার্ডটির গ্রাহক এর সঙ্গে যুক্ত প্রয়োজনীয় সমস্ত তথ্য খুব কম সময়ের মধ্যেই পেতে পারবে। সমস্ত যানবাহন ব্যাবহারকারীদের জন্য এই কার্ড এর সুবিধা হল, এই বিশেষ ধরনের কার্ডটি কে ব্যাবহার করা খুবই নিরাপদ ও সহজ।

সবাই কে বলে জানিয়ে দিই, এই নতুন বিশেষ ড্রাইভিং লাইসেন্স এর কার্ডগুলি পলিভিনাইল ক্লোরাইড অথবা পিভিসি অথবা পলি কার্বোনেট এর পদার্থ দিয়ে তৈরি হবে, যার কারণে সেই বিশেষ কার্ডগুলি জলে ভিজে নষ্ট হওয়ার কোনো রকমের চিন্তা নেই। সেই বিশেষ কার্ডের সাইজ হবে ৮৫.৬ মিমি x ৫৪.০২ মিমি।