লকডাউনের মধ্যেও ব্যাংকের এই পাঁচটি পরিষেবা অত্যন্ত বাধ্যতামূলক করল কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রক, বিশদে জানতে…

দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে গোটা দেশজুড়ে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সমস্ত মানুষ এখন একপ্রকার গৃহবন্দী হয়ে সময় কাটছে। তবে এইসব এর মাঝেও সম্প্রতি অর্থমন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে লকডাউন এর মধ্যেও খোলা থাকবে সমস্ত ব্যাংক। সাধারণ মানুষকে পরিষেবা দিতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে সরকারের তরফ থেকে আজ সোমবার থেকেই পাওয়া যাবে সমস্ত ব্যাংকের পরিষেবা। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর তরফ থেকে জানানো হয়েছে পাঁচটি পরিষেবা অত্যাবশ্যক ব্যাংকের জন্য।

এর পাশাপাশি ব্যাংক কর্মীদের ও স্বাস্থ্য নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে উদ্যোগী হয়েছে সরকার। তবে সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং মেনেই যথাযথ ব্যবস্থা রাখা হবে ব্যাংক গুলিতে। কয়েকদিন আগেই লকডাউন এর ব্যাংক পরিষেবা দেওয়ার কথা বলা হলেও বেশ কিছু বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে ব্যাংকিং সেক্টরে। এখানে এই নির্দেশমালা তে জানানো হয়েছে আপাতত সকাল 10 টা থেকে দুপুর দুটো পর্যন্ত খোলা থাকবে ব্যাংকের পরিষেবা তবে সব ব্যাংকের সব ব্রাঞ্চ খোলা পাবেন না গ্রাহকেরা এক্ষেত্রে।

এক্ষেত্রে প্রতিটি ব্যাংকে 5 কিলোমিটার অন্তর খোলা থাকবে একটি করে শাখা নিয়ম লাগু করা হয়েছে সমস্ত ব্যাংকের ক্ষেত্রেই।তবে এক্ষেত্রে এই একই পথে হাঁটতে দেখা যায়নি ইন্ডিয়ান ব্যাংকিং অ্যাসোসিয়েশন কে মূলত এখানে গরিব কল্যাণ প্রকল্পের টাকা দেওয়ার কথা বলেছেন মোদি সরকার আপাতত আর আপাতত তারই হিসেব নিকেশ কষছে ব্যাংকিং অ্যাসোসিয়েশন সেই কারণেই আগের মতোই সোমবার থেকে খোলা থাকবে ব্যাঙ্কগুলি।

গ্রামের দিকে যেরকম একদিন অন্তর ব্যাংক খোলা থাকছিল এবার থেকে সেই রকম খোলা থাকবে না রোজই ব্যাংক খোলা থাকবে শহরের সব ব্যাংকের শাখাও এক্ষেত্রে খোলা থাকবে। টাকা জমা ও তোলা, চেক ক্লিয়ারিং, বিদেশ থেকে পাঠানো অর্থ প্রক্রিয়াকরণ এবং সরকারি লেনদেন এই সমস্ত পরিষেবাগুলি গ্রাহকেরা পেতে চলেছে।তবে অন্যদিকে দেশের মানুষকে করোনাভাইরাস মোকাবেলা করার পরামর্শ দিয়ে ব্যাংকে না এসে ডিজিটাল লেনদেন এর পরামর্শ দিচ্ছেন কতৃপক্ষ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ব্যাংকে গেলে তাদের ব্যাংকের অ্যাপ স্মার্টফোনে ডাউনলোড করিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

যেহেতু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভাইরাস মোকাবেলায় সকল দেশবাসীকে শামিল হতে বলেছেন তাই এরকম সময় দেশবাসীকে ডিজিটাল লেনদেনে উৎসাহ করেছেন পাশাপাশি। যেমনটা আমরা জানি সোমবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যজুড়ে শুরু করা হয়েছিল লকডাউন তবে হাজার সচেতনতামূলক প্রচারের পরেও তা ঠিকভাবে পালন করছে না অনেক মানুষ। আবার কলকাতার বুকে লকডাউন না মেনে ঘুরে বেড়াচ্ছে বেপরোয়াভাবে লোকজন। তাই অবশেষে কঠোর ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হয়েছে কলকাতা পুলিশ এবং লকডাউন না মানায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে হাজারেরও বেশি মানুষকে এবং ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী 188 ধারা প্রয়োগ করা হয়েছে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই।

Related Articles

Close