ভ্যাকসিন নেওয়ার পর কী একেবারেই ছোঁয়া যাবে না অ্যালকোহল? কী বলছে গাইডলাইন? জানুন বিস্তারিত

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ঝড়ের গতিতে বাড়ছে। করোনা সংক্রমনের বারার সাথে সাথে মানুষের মনে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে প্রচুর পরিমাণে। মানুষ এখন যেকোনো উপায়ে করোনার হাত থেকে বাঁচতে চায়। অনেকের মনেই ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে যে, অ্যালকোহল ভাইরাসকে ধ্বংস করে দেয়। ভাইরাসকে ধ্বংস করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তোলে এই অ্যালকোহল। আসলে বিষয়টি কী আদৌ সত্যি?

 

অ্যালকোহল শরীরের বাইরে ভাইরাসকে নষ্ট করতে পারলেও শরীরের মধ্যে প্রবেশ করা ভাইরাসকে ধ্বংস করতে পারে না। বরং অ্যালকোহল সেবনে শরীরের অনেক ক্ষতি হয় এমন কি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকেও নষ্ট করে দেয় এই অ্যালকোহল। অ্যালকোহল করোনার হাত থেকে মানুষকে বাঁচাতে পারে কিনা সেই বিষয়ে কিছু আলোচনা করা যাক।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের ওয়েবসাইটে গাইডলাইনে দেওয়া হয়েছে যে ভ্যাকসিন নেওয়ার পরে যদি কোনো ব্যক্তি অ্যালকোহল সেবন করেন সেক্ষেত্রে তার ভ্যাকসিনের প্রভাব হ্রাস পেতে পারে। কিন্তু এক্ষেত্রে সঠিক কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি তবে বিশেষজ্ঞরা বলেছেন যে ভ্যাকসিন নেওয়ার পরে অ্যালকোহল সেবন না করাই ভালো।

 

তবে এই বিষয়ে WHO এবং CDC অ্যালকোহল সম্পর্কিত কোনও পরামর্শ দেয়নি। অ্যালকোহল পান করলে মানুষদের নিউমোনিয়া ও টিউবারকিউলোসিসের মতো রোগ হতে পারে। এছাড়াও অ্যালকোহলের ফলে বিভিন্ন ঔষধের ক্ষমতা হ্রাস পায়। এমনকি মানসিক স্বাস্থ্যের ক্ষতি হতে পারে এই অ্যালকোহলের ফলে।

করোনার ভ্যাকসিন দেওয়ার পরই মানুষের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হতে অন্তত তিন সপ্তাহ সময় লেগে যায়। এই সময়ের মধ্যে মানুষের অ্যালকোহলকে বর্জন করা উচিত। তাই চিকিৎসকরা জানিয়েছেন করোনার ভ্যাকসিন নেওয়ার পরে প্রায় ৪৫ দিন পর্যন্ত মানুষকে অ্যালকোহল থেকে দূরে থাকা উচিত।