আজ থেকে কলকাতা জুড়ে শুরু করা হল বাসসহ ক্যাব পরিষেবা! নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে রুটে চলবে বাস ও অ্যাপ ক্যাব..

যেমনটা আমরা দেখতে পাচ্ছি এই তৃতীয় দফার লকডাউন চলাকালীন কাল 12 ই মে থেকে শুরু করা হয়েছে প্যাসেঞ্জার ট্রেন দেশজুড়ে দিল্লি থেকে দেশের গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যে ট্রেন চলাচল শুরু করা হয়েছে রেলমন্ত্রকের তরফ থেকে। আর আজ থেকে কলকাতায় এবং তার পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলোতে শুরু করা হচ্ছে বাস ও ক্যাব।তবে এক্ষেত্রে এই যে বাস বা ক্যাব গুলি চলবে সেগুলি কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম মেনেই চলবে।যদিও এক্ষেত্রে বাস গুলিকে নির্দিষ্ট রুটে নামানোর আগে সম্পূর্ণভাবে স্যানিটাইজার করা হবে এমনটাই জানানো হয়েছে পরিবহন দপ্তরের তরফ থেকে।

আর তথ্য অনুযায়ী যা জানতে পারা যাচ্ছে সেখানে জানা যাচ্ছে এই যে বাস গুলো শুরু করা হয়েছে সেগুলি রুট হল হাওড়া- কামালগাজি, হাওড়া- গড়িয়া, হাওড়া -নিউটাউন, এসপ্ল্যানেড- আমতলা, হাওড়া-ঠাকুরপুকুর, হাওড়া-বারাইপুর, যাদবপুর- করুণাময়ী, বারাসাত-জোকা, টালিগঞ্জ- করুণাময়ী, বালিগঞ্জ- ডানলপ, বারাসাত- গড়িয়া সহ আরো তিনটি রুটে আজ থেকে সরকারি বাস শুরু করা হচ্ছে, তবে এক্ষেত্রে কিছু নিয়মের কথা বলা হয়েছে যেগুলি মান্য করে এই বাস গুলি চালানো হবে রুটগুলোতে।
এক্ষেত্রে বাস চলাচলের ক্ষেত্রে যে তিনটি নিয়ম রাখা হয়েছে সেগুলি হল নিম্নরূপ-

প্রথমত এক্ষেত্রে একটি বাসে সর্বাধিক কুড়ি জন যাত্রী নিয়ে যাবে তার বেশি যাত্রী নেওয়া যাবে না।

দ্বিতীয়তঃ প্রত্যেকদিন বাস স্যানিটাইজ করতে হবে

তৃতীয়তঃ যেসব যাত্রীরা এই বাসে যাতায়াত করবেন তাদের ফেস কভার ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক।

বাস পরিষেবা পাশাপাশি আজ থেকে শুরু করা হচ্ছে অ্যাপ ক্যাব পরিষেবা। এই পরিষেবা প্রদান করা হবে হাওড়া, কলকাতা, সল্টলেক ও ব্যারাকপুরে। তবে বলে রাখি এক্ষেত্রে পরিবহন দপ্তর এর তরফ থেকে যে খবর জানানো হয়েছে সেখানে জানিয়েছেন মূলত যারা দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে এই করোনা ভাইরাস কে রুখতে দেশের হয়ে কাজ করছেন সেসব সরকারি ও বেসরকারি সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের কথা মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তাছাড়া এক্ষেত্রে করোনা আক্রান্ত রোগী ছাড়া বাকি অন্যান্য যেসব রোগীরা রয়েছেন তাদের জন্য কিংবা কোন এমার্জেন্সি পরিস্থিতিতে হাসপাতাল যেতে হলে তাদের কথা মাথায় রেখেই এই পরিষেবা শুরু করা হচ্ছে। আর এক্ষেত্রে ক্যাব পরিষেবা ব্যবহারের ক্ষেত্রেও রাখা হয়েছে নিয়ম যেখানে জানানো হয়েছে…

1)একটি ক্যাবের মধ্যে সর্বাধিক দুজন যাত্রী নিয়ে যাওয়া যাবে তার বেশি যাত্রী নেওয়া যাবে না এক্ষেত্রে কোনো রোগী থাকলে তার সাথে কেবল একজন ব্যক্তিই গাড়িতে উঠতে পারবেন।

2) তাছাড়া এই ক্যাবগুলি কনটেইনমেন্ট এলাকায় ঢুকতে পারবেন না। শুধুমাত্র বিধাননগর, হাওড়া, কলকাতা,ব্যারাকপুর সিটি পুলিশের এলাকায় এই ক্যাব চলাচল করতে পারবে।

3) আর এক্ষেত্রে ক্যাব চালককে সম্পূর্ণ ফেস কভার ও গ্লাভস পড়ে থাকতে হবে। তার পাশাপাশি যাত্রী দেরও গ্লাভস ও মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। এর পাশাপাশি গাড়িতে মজুদ রাখা হবে স্যানিটাইজার এটি গাড়িতে ওঠার আগে যাত্রীদের দেওয়া হবে।