ভারতে বিনিয়োগ বাড়ানোর উদ্দেশ্যে বিপুল পরিমাণে কর্মসংস্থানের উপর জোর দিচ্ছে অ্যাপল

সম্প্রতি ভারতে বিনিয়োগ বাড়াবার জন্য কর্মসংস্থানের উপর উল্লেখযোগ্যভাবে জোর দিতে চলেছে অ্যাপল। সংস্থার ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রিয়া বালাসুব্রাহ্মণ্যম ভারতের বিনিয়োগ সমপ্রসারণের জন্য কর্মসংস্থানের উপর জোর দিচ্ছে এবং কর্মী, ,অ্যাপ এবং সরবরাহকারী অংশীদারদের নিয়ে প্রায় দশ লক্ষেরও বেশি কর্মসংস্থান কে সমর্থন করতে চলেছে। সংস্থার চেয়ারম্যান বলেন অ্যাপল ভারতে প্রায় দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে কাজ করছে। ২০২১ সালে এক সাক্ষাৎকারে এসে এমন মন্তব্য করেন। ২০১৭ সাল থেকে ব্যাঙ্গালুরুতে আইফোন উৎপাদন করা হয় ।

সংস্থার চেয়ারম্যান আরো বলেন আভ্যন্তরীণ আমদানি- রপ্তানি সুবিধার্থে জন্য আমরা এখানে এব চেন্নাই সুবিধাগুলি সাথে সম্প্রসারণ শুরু করছি। সম্প্রতি রপ্তানি করার জন্য বেশ কয়েকটি আইফোন মডেল তৈরি করা হচ্ছে ।মূলত ভারতের বিনিয়োগ বাড়ানোর মূল উদ্দেশ্য হলো সমস্ত কার্যক্রমের বিকাশ এবং প্রসার ঘটানো সংস্থার চেয়ারম্যান আরো বলেন আমাদের সরবরাহকে সুশৃঙ্খলিত করার জন্য বিনিয়োগ বাড়ানোর প্রয়োজন। আইফোন ১১, আইফোন ১২ ইত্যাদি আইফোনের মডেলগুলি ভারতেই তৈরি হয়।

সংস্থার চেয়ারম্যান আরো জানান , ” অ্যাপল অবস্থা সংস্থা প্রথমবারের জন্য সারা ভারতের সরাসরি পণ্য এবং পরিষেবা সম্পূর্ণ পরিসর সরবরাহ করে অ্যাপেল অনলাইন স্টোরটা স্থাপন করে আজ অ্যাপেল ভারতের প্রায় ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান জোগাড় করে। আমাদের কর্মচারী থেকে শুরু করে দ্রুত বর্ধনশীল আইওএস এর অর্থনীতি সরবরাহকারী অংশীদারদের সাথে আপনার সম্পর্ক আরও উন্নত হচ্ছে। ” সংস্থার চেয়ারম্যান এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে এ ঘটনায় কালীন পরিস্থিতি বাণিজ্যিক গুরুত্ব কিছু অংশে কমেনি। দেশে আইফোন উৎপাদনে রেকর্ড গড়েছে।

শুধু অর্থনীতিকে উন্নত করার জন্য নয়, সংস্থার সার্বিক উন্নতিকরনের জন্য ভারতে একটি বিনিয়োগের পরিমাণ বৃদ্ধি করার দরকার। বিনিয়োগের মাধ্যমে স্থিতিস্থাপক অর্থনীতিকে আরো উৎসাহিত করবে। ২০২১ সালে ত্রৈমাসিক রিপোর্ট অনুযায়ী সর্বোচ্চ ক্রমবর্ধমান ব্র্যান্ড ছিল এটি। প্রিমিয়াম স্মার্টফোন বাজারে ৪৪ শতাংশ শেয়ার নিয়ে নেতৃত্ব দিয়েছিল। এই সংস্থা ৭৪ শতাংশ শেয়ারের মাধ্যমে নেতৃত্ব স্থানীয় অবস্থান বজায় রেখেছে।

এই বছরই প্রথমবার জন্য অ্যাপেল প্রিমিয়াম বিভাগে শীর্ষ ৫জি স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হয়ে উঠেছে। সর্বপরি এ কথা বলা যায় ভারতীয় বাজারে আইফোন ১১ এবং আইফোন ১২ বিপুল জনপ্রিয় হয়েছে । সুতরাং সংস্থার পক্ষ থেকে ব্যবসায় উন্নতি করার জন্য ভারতে বিনিয়োগ বাড়ানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে।