দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

ডিসেম্বর ২০২৩ থেকে ভারতে চলবে বুলেট ট্রেন, লোকেরা মুম্বই থেকে আহমেদাবাদে করবে যাত্রা

মুম্বাই এবং আহমেদাবাদ এর মধ্যে ডিসেম্বর ২০২৩ এ বুলেট ট্রেন এ যাতাযাত ব্যবস্থা চালু হবে। ন্যাশনাল হাইস্পিড রেল কর্পোরেশন লিমিটেড শুক্রবার দিন জানালো যে মুম্বাই থেকে আহমেদাবাদে সকাল ৬:০০ টা থেকে রাত্রি ১২:০০ তার মধ্যে ১৭ বার চক্কর লাগবে। এই ট্রেনটির সুবিধা ভোগ করার জন্য প্রত্যেক ব্যক্তিকে কমবেশি ৩০০০ টাকা পর্যন্ত দিতে হবে। এনএইচএস আরসিএল এর মেনেজিং ডাইরেক্টর আঁচল খের বললেন যে এই পুরো প্রজেক্টটি তে ১৩৮০ হেক্টর জমির প্রয়োজন এবং এর মধ্যে ৬২২ হেক্টর জমির ব্যাবস্থা করতে পাওয়া গেছে।

বুলেট ট্রেনটি মুম্বাই থেকে আহমেদাবাদ পর্যন্ত ৮০৫ কিমি এর দূরত্ব । এবং এই ট্রেন টি ১২ স্টেশন এ দাঁড়াবে বলে মনে করা হচ্ছে। আঁচল খের বললেন, নিজের ,সরকারের,জঙ্গল এবং রেল বিভাগের জায়গা গুলি আমরা প্রয়োজনে ব্যাবহার করবো। এখনো পর্যন্ত আমরা ৪৫ শতাংশ জমির ব্যাবহার করে নিতে পেরেছি। আমরা ডিসেম্বর ২০২৩ এর গুরুত্বপূর্ণ দিনটিকে ধ্যান রেখে এগিয়ে চলছি। পরে যোজনা গুলো পুরো হওয়ার পর বুলেট ট্রেন সকাল ৬:০০ টা থেকে রাত্রি ১২:০০ ত পর্যন্ত মোট ৩৫ বার চক্কর লাগবে।

মার্চ ২০২০ মধ্যে এই যোজনা গুলি পূরণ হওয়ার আশা রয়েছে। এই প্রজেক্ট টিকে ২৭ টি প্যাকেজে ভাগ করা হয়েছে।এতে মহারাষ্ট্রের সমুদ্র ভিতরে তৈরি সুরঙ্গ টি ও শামিল রয়েছে। তারা জানালেন এই পরিযোজনাটির জন্য ১.০৮ লক্ষ কোটি টাকা লেগেছে। আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি যে এটিকে যেন ২০২৩ এর মধ্যে পুরো করতে পারি।গুজরাটে কমপক্ষে আমাদের ৫৩০০ নিজস্ব জমির ব্যবস্থা করতে হবে এবং এখনো পর্যন্ত আমরা ২৬০০ জমির ব্যাবস্থা করতে পেরেছি।

কিছু কিছু মানুষ এই জমি গুলোর জন্য বিরোধ ও করেছে কিন্তু এতে আঁচল বললেন সরকার দ্বারা প্রত্যেক জমির যে দাম ধার্য্য করা হয়েছে ,সেগুলি ২০১১ থেকে এখনো পর্যন্ত সংশোধিত করা হয়নি।কিন্তু এই দাবি গুলিকে ঠিক ভাবে সামলে নেওয়া হয়েছে।১৯৮ টি গ্রামের মধ্যে এই সমস্যাটি কেবল ১৫ টি গ্রামের মধ্যে বাকি রয়েছে।

Related Articles

Back to top button