দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

বাজেটে বড় ঘোষণা নির্মলা সীতারামনের দেশজুড়ে চিকিৎসা পরিষেবা কে উন্নত করতে এবার জেলায় জেলায় তৈরি করা হবে মেডিকেল হসপিটাল…

এবার কেন্দ্রীয় বাজেটে স্বাস্থ্য পরিষেবা কে উন্নত করে তুলতে বড় পদক্ষেপ নিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। এইদিন বাজেটে তিনি আশ্বাস দিলেন দেশে চিকিৎসকের সংখ্যা বাড়ালেই পরিষেবা আরো উন্নত পাবে রোগীরা বলে কোন সমস্যায় পড়তে হবে না তাদেরকে আর।আর এরই সাথে তিনি আরো জানান যে প্রায় দেশের প্রত্যেকটি জেলাতেই তৈরি হতে চলেছে মেডিকেল কলেজ। এর ফলে যেমন চিকিৎসকের সংখ্যা বাড়বে একদিকে তেমন আবার পরিষেবা কে আরো উন্নত করা যাবে।

তবে এখানেই শেষ নয় এরই সাথে তিনি আরও বলেন যে ন্যায্য দামে ওষুধ পেতে গোটা দেশজুড়ে সস্তায় ওষুধ বিক্রির বন্দোবস্ত করা হবে। তবে যেমনটা আমরা জানি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা খরচ সরকারি হাসপাতালে তুলনায় অনেকগুণ বেশি তাই যেসব মানুষের আর্থিক অবস্থা খুব একটা ভালো নয় সেসব রোগীরা বেসরকারি হাসপাতালে না গিয়ে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ছুটেন। তবে সে ক্ষেত্রে একাধিক ভাগ এমনটা অভিযোগ ওঠে যে পরিষেবা সঠিকভাবে মিলছে না তাদের। তাই এবার সেসব সাধারণ মানুষদের কথা মাথায় রেখেই দেশজুড়ে চিকিৎসা ব্যবস্থাকে আরো উন্নয়নে নজর দিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার এমনটাই জানান তিনি এই দিনে। আর এর জন্য আপাতত 69 হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে, এইদিন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ সংসদে দাঁড়িয়ে বাজেট পেশের সময় বলেন আমাদের দেশে চিকিৎসকের বড়ই অভাব, না পাওয়া যায় জেনারেল ফিজিশিয়ান। তেমনটাই পাওয়া যায় না কোন স্পেশালিস্ট চিকিৎসক ও। তাই প্রথম পদক্ষেপ হলো দেশজুড়ে চিকিৎসকের সংখ্যা বাড়ানো, আর তাই এই সিদ্ধান্তকে বাস্তবে পরিণত করতে পিপিপি মেডেলে প্রত্যেকটি জেলা হাসপাতালের সঙ্গে গড়ে তোলা হবে মেডিকেল কলেজ।

আর এখন অনেক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন নির্মলা সীতারমণ এর এই ঘোষণার ফলে চিকিৎসকের সংখ্যা যেমন বাড়বে তেমনি উন্নত হবে দেশের সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসা পরিষেবাও।এখনো পর্যন্ত বর্তমানে এমন অনেক জেলা রয়েছে যেখানে সরকারি হাসপাতাল পর্যন্ত নেই আর ওই জেলার মানুষেদের চিকিৎসা পরিষেবা ছুটতে হয় বেসরকারি হসপিটালে। আর সেই সব মানুষদের কথা ভেবেই মোদী সরকার আয়ুষ্মান ভারত এর আওতায় এনে হাসপাতাল তৈরি বন্দোবস্ত করা হবে বলে বাজেট ঘোষণা করলেন অর্থমন্ত্রী।

এরই সাথে এই দিন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন নানা প্রকল্পের কথা ঘোষণা করে জানালেন সাধারণ মানুষ যাতে খুব সহজেই চিকিৎসা করে সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন তার জন্য নেওয়া হতে চলেছে আগামী দিনে নতুন নতুন পদক্ষেপ।আর এরই সাথে বাংলায় ন্যায্য মূল্যের ওষুধের দোকান চালু হবেন বলে একথাও ঘোষণা করেন তিনি এই দিন। উল্লেখ্য, একথা বলা যেতে পারে যে দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা কে যদি ভালোভাবে উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া যায় তাহলে দেশের সকল মানুষই এর ফলে উপকৃত হবেন।

Related Articles

Back to top button