দলে ভাঙ্গন,এবার মমতার সবচেয়ে কাছের মানুষটি দল ছেড়ে যোগদান করলেন বিজেপিতে।

এই মুহূর্তে দেশের রাজনীতিতে চলছে মোদী ঝড়। দেশের প্রায় সমস্ত রাজ্য থেকে বিরোধীদের বিজেপিতে যোগ দেওয়া এখন নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। একটু খবরের কাগজে রাজনৈতিক বিষয়ে চোখ রাখলে প্রায়ই দেখা যায় যে, নিজের পুরোনো দল ছেড়ে এখন মোদীজির আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে প্রায় দিনই কোনো না কোনো বিরোধী নেতা যোগ দিচ্ছেন বিজেপিতে। অন্য সকল রাজ্যের সাথে পাল্লা দিয়ে আমাদের রাজ্যও পিছিয়ে নেই। কিছু মাস আগে আমাদের রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস থেকে তৃণমূলের 2nd man হিসেবে পরিচিত মুকুল রায় যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। এবার আবার সেই তৃণমূল ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগদান করলেন তৃণমূলের আরেক হেভিওয়েট নেতা। আসুন দেখে নেওয়া যাক কে সেই নেতা যার জন্য এবার তৃণমূল পড়তে চলেছে চরম বিপাকে।

তৃণমূল কংগ্রেস যখন এই রাজ্যে প্রথমবারের মতন সরকার গঠন করেছিল সেই সময় তখন ডঃ সুকান্ত বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন রাজ্যের স্বাস্থ্যশিক্ষা অধিকর্তা। এই সুকান্ত বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন এক সময়ে মমতার সবচেয়ে ভরসার আমনা। বুধবার এই সুকান্ত বাবু তৃণমূল ছেড়ে যোগদান করলেন বিজেপিতে। খোদ মুখ্যমন্ত্রী নিজেই তাকে এই পদে বসিয়েছিলেন বলে জানা গিয়েছে। এবার তিনি বিজেপি যোগদান করলেন এবং বিজেপিতে যোগ দিয়ে তিনি প্রকাশ করলেন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা।

একদিন আনুষ্ঠানিক ভাবে উনার হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ মহাশয়। এই দিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের অন্যান্য বিজেপি নেতানেত্রীরাও। সেই সাথে দিলীপ বাবু জানিয়েছেন যে, এখন আর কেউ তৃণমূলের উপর ভরসা করতে পারছেন না। তাই দিকে দিকে সমস্ত বড় বড় নেতারা তৃণমূল ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগদান করছেন। একটু অপেক্ষা করুন আরও অনেকেই তৃণমূল ত্যাগ করবেন। শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা তারপরই তৃণমূল খালি হয়ে যাবে।

এছাড়াও এইদিন গণতন্ত্র বাঁচানোর জন্য যে পোষ্টার করা হয়েছে সেই পোষ্টার উদ্বোধন করেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বিজেপিতে যোগ দিয়ে সুকান্ত বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন যে, আমি মোদীজির আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে বিজেপিতে যোগদান করেছি। মোদীজি দেশের জন্য যেভাবে কাজ করছেন এটা খুব কম প্রধানমন্ত্রী করেছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।
#অগ্নিপুত্র