ব্রেকিং খবরঃ আবারো সব কনটেইনমেন্ট জোনগুলিতে কড়া ভাবে পালন হবে লকডাউন, বড় ঘোষণা নবান্নের…

গোটা বিশ্ব জুড়ে চলছে করোনা ভাইরাসের তাণ্ডব আর এই ভাইরাসের সাথে মোকাবিলা করার জন্য গোটা বিশ্ব এখন এই মরন ভাইরাসের ভ্যাকসিন খুঁজতে উঠে পড়ে লেগেছে। যদিও এর আগে একাধিক সংস্থার তরফ থেকে দাবি করা হয়েছিল এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন নাকি তারা নাকী আবিষ্কার করে ফেলেছেন তবে সেসব খরব যে ভুয়ো তা আগেই প্রমাণিত হয়েছে। ভারতেও চলছে এই মরণ ভাইরাস COVID-19 এর তাণ্ডব। তবে গত কয়েকদিন আগে থেকে যেটি ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল যে আবারো রাজ্যজুড়ে বিশেষ বিশেষ এলাকায় কার্যকর হতে পারে লকডাউন এর বিধি।

তবে এবার সেই কথাই যেনো সত্যি হতে দেখা দিয়েছে কারণ এবার সেই বিষয়ে জারি করা হয়েছে এক নির্দেশিকা। এক্ষেত্রে রাজ্যের যে সমস্ত কনটেইনমেন্ট জোনগুলি রয়েছে সেগুলোতে আবারো লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আর আগামী বৃহস্পতিবার দিন থেকে সমস্ত কনটেইনমেন্টে জারি থাকবে লকডাউন। শুধু তাই নয় আগামী 9 জুলাই থেকে সমস্ত কনটেইনমেন্ট জায়গা গুলিতে কড়া ভাবে কার্যকর করা হবে এই নিয়ম বিধি, প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে আগামী 9 জুলাই বিকেল পাঁচটার পর থেকে চালু করা হতে চলেছে এই বিধি নিষেধ।


আর এবার থেকে কোন কনটেইনমেন্ট, বাফার, কিংবা ক্লিয়ার জোন হিসাবে থাকছে না এক্ষেত্রে সব এলাকায় কনটেইনমেন্ট জোন এর আওতায় থাকবে। অর্থাৎ তিনটি জোনই এখন থেকে কনটেইনমেন্ট জোন হিসাবে বিবেচিত করা হবে। আর এক্ষেত্রে এই জোন গুলিতে জরুরী পরিষেবা ছাড়া সমস্ত পরিষেবা আপাতত বন্ধ রাখা হবে। পাশাপাশি বন্ধ থাকবে সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি অফিস। এক্ষেত্রে নবান্নের তরফ থেকে যে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে সেখানে জানানো হয়েছে আগামী 9 জুলাই থেকে কনটেনমেন্ট জোনে মিলবে না বিশেষ ছাড়, শুধু মাত্র জরুরি পরিষেবায় মিলবে। তবে কিছু ক্ষেত্রে শর্ত সাপেক্ষে ছাড় মিলতে পারে। এক্ষেত্রে মিলবে না কোনো পরিবহনের সুবিধায়, তাছাড়া অফিস- আদালত বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে।

তাছাড়া যে বাফার জোন গুলি রয়েছে সেগুলো চলে আসবে এক্ষেত্রে কনটেইনমেন্ট জোনের আওতায়।এক্ষেত্রে চালানো হবে কড়া নজরদারি এই জোন গুলিতে সমস্ত সরকারি অফিস বন্ধ থাকবে পুলিশ এলাকায় এলাকায় নজরদারি করবে। আর সেখানে ক্ষমতায় থাকায় স্থানীয় প্রশাসন নির্দিষ্ট করে দেবে কোথায় কোন এলাকায় কড়া কড়িভাবে করা হবে এই নিয়ম।বন্ধ থাকবে সমস্ত বাজার দোকানপাট অতি আবশ্যকীয় পণ্য ছাড়া সমস্ত দোকানে ক্ষেত্র বন্ধ রাখা হবে তার পাশাপাশি জামায়াতের ওপর রাখা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা আর মুহূর্তে মুহূর্তে পুলিশ নজরদারি চালাবে।

Related Articles

Back to top button