বড় খবর! মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক জঙ্গী ঘোষণায় ফের বাধা প্রকাশ চীনের…

ফের একবার  পাকিস্তানকে সাপোর্ট করল চীন। কাশ্মীরে পুলওয়ামার জঙ্গী হামলায় জড়িত জইশ-ঈ-মহম্মদ জঙ্গি সংগঠনের  প্রধান মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণা করার প্রতিক্রিয়ায় চীন ভেটো দিলো।কূটনৈতিক মহলের একটাই দাবি যে, যতদিন এই ভেটো দেওয়ার ক্ষমতা চীনের হাতে থাকবে ততদিন পর্যন্ত মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণা করা যাবে না। 14 ই ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামাতে সিআরপিএফের কনভয়ে জইশ-ই-মহম্মদের জঙ্গীরা প্রবল বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে 40 জন সিআরপিএফ জাওয়ান শহীদ হন। এতজন সিআরপিএফ এর মৃত্যুর পরে আন্তর্জাতিক রাজনীতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। এরপরে তাদের যোগ্য জবাব দিতে 26 শে ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের সীমান্তে ঢুকে জইশ-ই- মহম্মদের জঙ্গি ঘাঁটি পুরোপুরি গুড়িয়ে দেয় ভারতীয় বায়ুসেনা। এরপর পাক বিমান বাহিনীও ভারতীয় সীমান্তে ঢুকে বোমা ফেলে।

তাদের তাড়া করতে গিয়ে ভারতীয় বায়ুসেনা অভিনন্দন বর্তমানের বিমান ভেঙে পড়ে যায় পাকিস্তানের সীমান্তে। এরপর পাকিস্তানি সেনা অভিনন্দন কে গ্রেপ্তার করে তার উপর অত্যাচার চালায়। কিন্তু কূটনৈতিক চাপের ফলে পাক সরকার তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়। এই পুরোপুরি বিষয়টি নিয়ে এখন উত্তপ্ত রয়েছে  ভারত-পাক সীমান্ত। প্রায় প্রতিদিনই সংঘর্ষ বিরোতি লঙ্ঘন করছে পাকিস্তানি সেনা। শুধু এটা নিয়েই নয় জইশ-ই-মহম্মদের প্রধান মাসুদ আজহারের পাকিস্থানে থাকা নিয়েও চরম শোরগোল পড়ে গেছে গোটা বিশ্বে। এই মাসুদ আজহার কে রাষ্ট্রসঙ্ঘের আন্তর্জাতিক জঙ্গী হিসেবে ঘোষণা করার প্রক্রিয়া পুরোপুরি সম্পূর্ণ হয়ে গেলে ইসলামাবাদের চাপ আরও বেড়ে যেত। ঠিক এমন একটি পরিস্থিতিতে চীন ভোটে প্রয়োগের ফলে এই প্রক্রিয়াটি আটকে গেল।ভারত মাসুদ আজহার কে জব্দ করার জন্য নানান ব্যবস্থা নেয়।

এমন কি বাকি দেশগুলোও মাসুদ আজহার কে আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণা করার পক্ষে মত প্রকাশ করেছে। কিন্তু ব্যতিক্রম রয়েছে শুধু চীন। ফলে এই প্রক্রিয়াতে বার বার বাধার সৃষ্টি হচ্ছে। এদিকে চীনের এই পদক্ষেপের জন্য ভারতে বিদেশমন্ত্রক একে যেমন হতাশ জনক বলেছে তেমনি ভারতের পাশে যারা দাঁড়িয়েছে এবং মাসুদ আজহার কে আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণা করার প্রস্তাব মেনে নিয়েছে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে।