কুয়েতে এক পাকিস্তানির কাছে বিক্রি হয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করলেন অভিনেতা তথা সাংসদ সানি দেওল..

এবার সিনেমার পর্দায় নয় একেবারে বাস্তবে কুয়েতে বিক্রি হয়ে যাওয়া গুরুদাসপুরে এক ভারতীয় মহিলা বাসিন্দাকে সেখান থেকে উদ্ধার করলেন অভিনেতা তথা বর্তমান বিজেপি সংসদ সানি দেওল। উদ্ধার করা ওই মহিলার নাম বিনা দেবী। বিনা দেবী নামক ওই মহিলাকে উদ্ধার করে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিলেন বলিউড অভিনেতা সানি দেওল। খবর সূত্রে জানতে পারা যাই এক ট্রাভেল এজেন্সির খপ্পরে পড়েছিলেন এই 45 বছর বয়সী বিনা দেবী।

এই বীণা দেবীকে পরিচালিকার কাজ দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে এক পাকিস্তানী ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দেওয়া হয় পরে ওই ব্যক্তি 30 হাজার টাকা বেতনে কাজ দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে তাকে কুয়েত নিয়ে যান আর সেখানেই শুরু করেন বীণার ওপর অত্যাচার। খবর থেকে জানতে পারা যায় তাকে ক্রীতদাস বানিয়ে রাখার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। এখন সবার মনে পরে না এসে কিভাবে সানি দেওল খুঁজে বার করলেন বীণা দেবীকে। তো আপনাদের বলে রাখি কিছুদিন আগে গুরুদাসপুরে করতাপুর করিডরে গিয়েছিলেন সানি।

সেখানকার  বর্তমান স্থানীয় সংসদ এর কাছে সাহায্য চান বীণার পরিবারের সদস্যরা। আর এই বিষয়টি জানার পর সানি তৎপর ব্যবস্থা নিতে শুরু করেন। আর সানি এক্ষেত্রে কুয়েতের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সাহায্য নিয়ে বীণা দেবীকে ভারতে ফিরিয়ে আনেন। খবর সূত্রে জানতে পারে যে গত শুক্রবার দিন ওই মহিলাকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে কাজের ফলে তার বাবা অর্থাৎ বলিউড অভিনেতা ধর্মেন্দ্রর সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে ছেলেকে আশীর্বাদ করেছেন তিনি। ছেলেকে তাঁর পরামর্শ সানি যেন চাকরি ভেবেই তাঁর কর্তব্যে অবিচল থাকেন।ছেলের জন‍্য বাবা ধর্মেন্দ্র সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, তাঁর ছেলে এভাবেই গুরুদাসপুরের সেবায় নিয়োজিত থাকবেন। আর অন্যদিকে এ খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পরই সানির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন সকলেই।