Skip to content

একাধিক ফ্লপ ছবি তা সত্ত্বেও বিরতি নিতে নারাজ, আকাশছোঁয়া পারিশ্রমিক নিয়ে পাল্টা উত্তর অক্ষয় কুমারের

অক্ষয় কুমার এমন একজন অভিনেতা যিনি একটি বছরে তিন থেকে চারটি সিনেমা আমাদের উপহার দেন। তবে গত বছর অক্ষয় কুমারের জন্য খুব একটা ভালো বছর প্রমাণিত হয়নি কারণ গত বছর অনেকগুলি সিনেমা আমাদের উপহার দিলেও কোন সিনেমা বক্স অফিসে আয় করতে পারেনি তেমনভাবে। অন্যদিকে হেরা ফেরি থ্রি আসার খবর শুনে আমরা সকলেই ভীষণ উৎসাহিত এবং উত্তেজিত হয়ে পড়েছিলাম কারণ এই সিনেমার তৃতীয় পর্ব মানেই আরো একবার বাবুরাও, রাজু এবং ঘনশামের সেই কেমিস্ট্রি দেখা যাবে সিনেমার পর্দায়।

তবে যখনই জানা গেল অক্ষয় কুমার এই সিনেমাতে অভিনয় করবেন না এবং অক্ষয় কুমারের পরিবর্তে নেওয়া হবে কার্তিক আরিয়ানকে তখন আমাদের সব স্বপ্ন এবং আশা ভেঙে চুরমার হয়ে যায়। অক্ষয় কুমার এই সিনেমাতে অভিনয় না করার পেছনে যে কারণ জানা যায় সেটি হলো অক্ষয় কুমার এই সিনেমাতে অভিনয় করার জন্য ১০০ কোটি টাকা পারিশ্রমিক চেয়েছিলেন যা দিতে মানা করে দেন প্রযোজক এবং পরিচালক। পারিশ্রমিক নিয়ে সমস্যা হওয়ায় হেরা ফেরি থ্রী সিনেমা করতে মানা করে দেন অক্ষয় কুমার।

এই খবর সামনে উঠে আসার পর সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে অক্ষয় কুমারকে নিয়ে উপহাস করা হয়। যেখানে একজন নায়কের কোন সিনেমা বক্স অফিসে হিট হতে পারছে না সেখানে কিভাবে ১০০ কোটি টাকা পারিশ্রমিক চান, তিনি তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে জনগণদের মধ্যে অনেকবার। কিন্তু এবার চুপ করে থাকলে না স্বয়ং অক্ষয় কুমার।

সম্প্রতি “সেলফি” সিনেমার ট্রেলার প্রকাশ উপলক্ষে মুম্বাইতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন খিলাড়ি। সেখানে অক্ষয়কে প্রশ্ন করা হয়, অভিনেতার আকাশ ছোঁয়া পারিশ্রমিক নিয়ে যখন আলোচনা করা হয় তখন ঠিক কেমন লাগে তার? উত্তরে তিনি বলেন, খুবই ভালো লাগে। ভালো লাগে, কারণ এগুলো ইতিবাচক আলোচনা। আপনার যোগ্যতা থাকলে আপনি আকাশ ছোঁয়া পারিশ্রমিকের কথা অবশ্যই বলতে পারেন।

পারিশ্রমিক নিয়ে সমস্যা হওয়া পরের কথা কিন্তু পারিশ্রমিক বলাটা আপনার যোগ্যতার উপর নির্ভর করছে।প্রসঙ্গত, ২০২৩ সালে ইমরান হাসমির সঙ্গে সেলফি সিনেমা ছাড়াও অক্ষয় কুমারকে দেখা যাবে ও মাই গড ২, ক্যাপসুল গিল এবং বড়ে মিয়া ছোট মিয়ার মত সিনেমাতে।