বিতর্ক যেন থামতেই চাইছে না এবার জয়ের মন্তব্যে পাল্টা কটাক্ষ বৈশাখীর, করলেন আবর্জনার সাথে তুলনা জয়ের

যেদিন তৃণমূল ছেড়ে দিল্লির দরবারে গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেওয়ার জন্য গিয়েছিলেন শোভন-বৈশাখী সেদিনই দেবশ্রী রায় তাদের পথের কাঁটা হয়ে উঠেছিলেন। তৃণমূলের রায়দিঘির বিধায়ক দেবশ্রী রায় কে নিয়ে কিছুতেই অস্বস্তি কাটছেনা শোভন-বৈশাখী দুজনার। অপরদিকে আবার জয় বললেন দেবশ্রীকে চাই তাতে শোভন-বৈশাখী দল থেকে যায় যাক। তবে তার এমন মন্তব্য শুনে পাল্টা আক্রমণের রাস্তা বেছে নিলেন শোভন এবং বৈশাখী।

বৈশাখী বনাম দেবশ্রী, বিতর্কে জয়:- শোভন এবং বৈশাখীর বিজেপিতে যোগদানের দিন অন্য ঘরে বসেছিলেন দেবশ্রী। এদিন শোভনের আপত্তি থাকার কারণে দেবশ্রীর যোগদান আটকে যায়। তাকে বিজেপি দপ্তরে কে নিয়ে এসেছিলেন তা নিয়ে বিজেপির মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়ে যায়। ঠিক এমনই একটি পরিস্থিতিতে জয় বন্দ্যোপাধ্যায় হাজির হল।

দেবশ্রী কে দলে চাই,শোভন-বৈশাখী যায় যাক:-তিনি বললেন দেবশ্রীকে দলে চাই। দেবশ্রী রায় আমার প্রথম ছবির নায়িকা। এছাড়াও তিনি বাংলার গ্ল্যামার কুইন। তাকে প্রত্যেকটি বাঙালি চেনে। তাতে শোভন এবং বৈশাখী যায় যাক কিন্তু দেবশ্রীকে চাই। বাংলা প্রেমের জায়গা আছে কিন্তু এখানে পরকীয়ার কোনো জায়গা নেই।

এমন হিরোর নায়িকা দেবশ্রী :- তবে জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের এমন মন্তব্যের পর তার পাল্টা জবাবে বৈশাখী বলেন, যদিও সিনেমাটি অন্ধকার সময়ের খবর আমি অতটা রাখিনা। তবে দেবশ্রী রায় কে আমি প্রথম থেকেই সুদক্ষ ও বলিষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জানতাম। তিনিও যে এমন একজন হিরোর নায়িকা হয়েছিলেন সেটি ভেবেই আমার অবাক লাগছে।

জয় বিজেপির আবর্জনা :-  এরপর জয়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন বৈশাখী। জয়কে বিজেপির আবর্জনা বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, আবর্জনা শুধু আস্তাকুঁড়ে থাকে না। আবর্জনা মানুষের মনেও থাকে। জয়ের মনে আবর্জনার স্তুপ রয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। তাই তিনি নিজের স্ত্রীর সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করতে একবারও ভাবেন না। যে নিজের স্ত্রীর সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করেন সে অন্যান্য মহিলাদের সম্পর্কে আর কি ভাবতে পারেন।

Related Articles

Close