দৌরাত্ম্য বাড়ছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের, এই সময় কী করবেন, কী করবেন না, বার্তা দিলেন স্বয়ং কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দিন দিন ভারতবর্ষে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে তার সাথে বেড়ে চলেছে মৃত্যুর মিছিল। করোনার সাথে আবার আরেকটি রোগ এসে মানুষের মনে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে। রোগটির নাম ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। ভারতবর্ষের মধ্যে মহারাষ্ট্রের বেশ কিছু করোনা রোগীদের মধ্যে এই ফাঙ্গাস রোগ দেখা গেছে।

 

শুক্রবার অর্থাৎ গতকাল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন ব্ল্যাক ফাঙ্গাস রোগ নিয়ে মানুষকে সচেতন করার জন্য বেশ কিছু মূল্যবান পরামর্শ দিলেন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রীর বক্তব্যে ফুটে উঠেছে মানুষ কিভাবে সচেতন হলে এই রোগ থেকে এড়িয়ে যেতে পারবে। বা এই রোগটির লক্ষণ এবং রোগটি হলে কিভাবে চিকিৎসা করাবে সেই বিষয়ে নানা বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী। চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের লক্ষণগুলি কী কী এবং এই রোগটি হলে কী করনীয় মানুষের।

লক্ষণ

১)চোখ লাল হওয়া

২) ফোলাভাব এবং যন্ত্রণা

৩) জ্বর

৪) মাথাধরা

৫) রক্তবমি

৬) শ্বাসকষ্ট

৭)নাক বন্ধ হওয়া বিশেষ করে কোভিড রোগীদের ক্ষেত্রে এই লোকটির বেশি পরিলক্ষিত হচ্ছে।

এই রোগটি হলে যা যা করণীয়

 

১) করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরে মানুষকে লক্ষ্য রাখতে হবে যে তাঁর রক্তে যেন সুগারের মাত্রা না বারে।

২) হাইপারগ্লাইসেমিয়াকে নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে।

৩) সতর্কভাবে স্টেরয়েড ব্যবহার করতে হবে।

৪) অক্সিজেন দিতে হলে পরিস্কার ফোটানো জল ব্যবহার করতে হবে।

৫) খুব বুঝে শুনে অ্যান্টি-বায়োটিক এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাস ওষুধ খেতে হবে।

কী করবেন না

১) ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের লক্ষণগুলি দেখলেই যত তাড়াতাড়ি পারেন ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

২) নাক বন্ধ থাকলে সাইনাসের সমস্যা বলে এড়িয়ে যাবেন না। বিশেষত করোনা রোগীদের ক্ষেত্রে ব্ল্যাক হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থেকে যায়।

৩) ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের লক্ষণ দেখা দিলে যত দ্রুত সম্ভব পরীক্ষা করান। আর পরীক্ষা করাতে ভয় পাবেন না।

৪) মিউকরমাইকোসিস ধরা পড়লে চিকিৎসা করাতে বিন্দুমাত্র দেরি করবেন না।