দেশনতুন খবরবিশেষরাজনৈতিক

লকডাউনের তোয়াক্কা না করে, কয়েকশো কর্মীদের নিয়ে জন্মদিন পালন করলেন বিজেপি বিধায়ক

জন্মদিন সকলেই ধুমধাম করে পালন করতে চান তবে এখন দেশের বর্তমান যা পরিস্থিতি তার জেরে বাইরে বেরোনো একপ্রকার বন্ধ হয়ে গেছে সাধারণ মানুষের। আর এই মুহূর্তে প্রশাসনের তরফ থেকেও বারবার এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে জরুরী কোন কাজ ছাড়া বাইরে না বের হতে অনুরোধ জানানো হচ্ছে দেশের সকল জনগণকে। আর এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে মহামারী আতঙ্ক করোনোকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে কর্ণাটকের টুমাকুরুর এক বিজেপি বিধায়ক তার সমর্থকদের নিয়ে ধুমধাম করে নিজের জন্মদিন পালন করলেন।

এই মুহূর্তে গোটা দেশজুড়ে জারি রয়েছে 21 দিনের লকডাউন যা আগামী 14 ই এপ্রিল পর্যন্ত জারি থাকছে। যেখানে দেশের জনগণ কে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার সিদ্ধান্ত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর এরকম এক সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে যে দেশের অধিকাংশ জনগণ তবে এবার এক বিধায়ক তিনি এই লকডাউন ভঙ্গ করলেন। বিজেপির বিধায়ক এরকম এক ঘটনার জেরে এক প্রকার অস্বস্তিতে পড়েছে বিজেপি। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে এই বিধায়ক টুমাকুরুর তুরুভেকেরে যিনি কেন্দ্রের বিধায়ক এম জয়রাম (Masale Jayaram)।

এই দিন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখতে পাওয়া যায় কত জন শিশুকে নিয়ে বড়োসড়ো করে ধুমধাম করে পালন করতেন নিজের জন্মদিন কেক কাটছেন এই বিধায়ক।এর পাশাপাশি আরেকটি ছবিতে দেখতে পাওয়া যায় বহু মানুষ এক জায়গায় ভিড় করে বিধায়কের নিমন্ত্রণে হাজির হয়েছেন সেখানে।আর তাদের মধ্যে কাউকে লক্ষ্য করা যাচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সকলের সামাজিক দূরত্ব রাখার যে গুরুত্ব সেদিকে যেন উড়িয়ে দিয়েছে।

তবে এই ঘটনা প্রথম নয় এর আগেও এই ধরনের আচরণ লক্ষ করা গেছে মহারাষ্ট্রের আরো এক আরভি কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক দাদারাও কেচে তিনিও নাকি এরকম ভাবে নিজের জন্মদিন পালন করেছিলেন।তাই এখন রাজনৈতিক মহল থেকে শুরু করে এরকম সাধারণ মানুষের মনেও একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে জনপ্রতিনিধিরাই যদি এভাবে নিয়ম ভেঙ্গে কাজকর্ম করতে থাকে তাহলে সাধারণ মানুষের কি পরিস্থিতি হবে এর জেরে।

Related Articles

Back to top button