মনোনয়নপত্রে উল্লেখ শুভেন্দুর সম্পত্তির পরিমাণ, নেই গাড়ি, হাতে নগদ টাকা বলতে কেবল মাত্র 5000 টাকা

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোটের দামামা বেজে গেছে। ভোট মঞ্চে নিজেদের জমি শক্ত করার জন্য প্রতিটি রাজনৈতিক দল নির্বাচনের শেষ পর্বের প্রচার শুরু করে দিয়েছে। এবারের বিধানসভা ভোটের প্রধান হটস্পট হল নন্দীগ্রাম। নন্দীগ্রামে তৃণমূলের হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। বিপরীতে বিজেপিতে রয়েছেন প্রাক্তন পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। শুক্রবার নন্দীগ্রামে বিজেপির হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে শুভেন্দু অধিকারী তাঁর সম্পত্তির বিষয়ে সবিস্তারে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের কাছে।

 

শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেছেন যে তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণের মূল্য হল, ৮০ লক্ষ টাকা। শুভেন্দু অধিকারীর স্থাবর সম্পত্তির মূল্য ২১ লক্ষ ৩৫ হাজার ১০২ টাকা। অস্থাবর সম্পত্তির মূল্য ৫৯ লক্ষ ৩১ হাজার ৬৪৭.৩২ টাকা। নন্দীগ্রামের গাংড়া-সহ কিছু জায়গায় শুভেন্দু অধিকারীর নামে সমান্য জমি আছে।

২০১৬ সাল থেকে শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূলের বিধায়ক ছিলেন। ৫ বছর রাজ্যের তৃণমূল সরকারের একাধিক দপ্তরের মন্ত্রীত্বের পাশাপাশি উন্নয়ন পর্ষদের বিভিন্ন পদেও ছিলেন। ইছাপুর কালী তার ৮০ লাখ টাকার সম্পত্তির পাশাপাশি। নির্বাচনী অ্যাকাউন্ট-সহ মোট ১৫ টি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট আছে। তবে ভোটের লড়াই করার জন্য তার হাতে আছে ৫০০০ টাকা।

সম্পত্তি দিক থেকে মমতা ব্যানার্জির থেকে এগিয়ে আছেন শুভেন্দু অধিকারী। মমতা ব্যানার্জি তাঁর নির্বাচনের হলফনামায় জানিয়েছেন কয়েকটি সেভিংস অ্যাকাউন্ট এবং ন্যাশনাল সেভিং সার্টিফিকেট মিলিয়ে তাঁর মোট অস্থাবর সম্পত্তির মূল্য ১৬ লক্ষ ৭২ হাজার ৩৫২ টাকা ৭১ পয়সা। তাঁর কোনো চাষযোগ্য জমি, গাড়ি নেই। উত্তরাধিকার সূত্রে তিনি কোনো সম্পত্তি পাননি। তাঁর ব্যাংকে কোনো ঋণ নেই।