কার দখলে যাবে বাংলা! ফেব্রুয়ারি মাসের সমীক্ষায় বেরিয়ে এলো চমকপ্রদ পরিসংখ্যান

আর কিছুদিনের মধ্যেই রাজ্যে আগামী  বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হতে পারে। নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার আগেই শাসক আর বিরোধী দুই শিবির ভোটারদের নিজেদের দলে টানতে প্রবল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। শাসক দল তৃণমূল নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য একের পর এক বড় ঘোষণা করে চলেছে। অন্যদিকে বিজেপি প্রথমবার বাংলায় ক্ষমতায় আসার জন্য তৃণমূলের দুর্নীতি, বেকারত্বর বিরুদ্ধে সরব।

পিছিয়ে নেই বাম-কংগ্রেস জোটও।  গোটা রাজ্য জুড়ে একের পর এক সভা করে চলেছে বাম কংগ্রেস জোট। তেমনই সংখ্যালঘুদের ভোট ফিরে পেতে আব্বাস সিদ্দিকীর নতুন দলের সঙ্গে জোট বাধারঁ পরিকল্পনা করছে৷ সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন আন্দোলন করেও জনসমর্থন পাওয়ার বিপুল চেষ্টা চালাচ্ছে বাম কংগেস জোট৷

CPIM

নির্বাচনী প্রস্তুতির মধ্যে এক নতুন সমীক্ষায় জানা যাচ্ছে,  একদিকে যেমন বিজেপি একটু হলেও আশার আলো দেখছে। তেমনই আরেকদিকে শাসক দল তৃণমূলের চাপ বেড়ে গিয়েছে। কারণ সমীক্ষা বলছে বিজেপির আসনসংখ্যা বেশি হবে৷

BJP

শ্রমিক আইনে আসছে বড়োসড়ো পরিবর্তন এবার থেকে ১৫ মিনিট অতিরিক্ত কাজ করলেও মিলবে পারিশ্রমিক

Mamata Banerjee

এখনি ভোট হলে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস ১৪৬-১৫৬ টি আসন পাবে। আগের মাসের সমীক্ষায় শাসক দলের  ছিল ১৫৪-১৬২ টি আসন। ফেব্রুয়ারির সমীক্ষায় বিজেপির ঝুলিতে ১১৩-১২১ টি আসন এবং জানুয়ারি মাসে বিজেপির ঝুলিতে ছিল ৯৮-১০৬ টি আসন। বাম-কংগ্রেস জোটের ক্ষেত্রেও  ফেব্রুয়ারি মাসে আসন কমেছে৷   ২০-২৮ টি আসন দেখানো হয়েছে। গত মাসের সমীক্ষায় বাম-কংগ্রেসের জন্য বরাদ্দ ছিল ২৬-৩৪ টি আসন।