বিধানসভা ভোটে পরাজয়ের পর ভারতবর্ষজুড়ে মমতা বিরোধী জনমত গড়ে তুলতে চাইছে বিজেপি শিবির

2021 এর বিধানসভা ভোটে দু’শোর বেশি আসনে জয়লাভ করে তৃতীয়বারের জন্য পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতায় আসে তৃণমূল সরকার। শত প্রচার সত্বেও বিধানসভা ভোটে গেরুয়া শিবির 77 এর বেশি আসন দখল করতে পারেন। তারপর থেকেই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিপরীতমুখী সদস্য হিসেবে নেটবাসীরা দেখতে চাইছে মমতা ব্যানার্জিকে।

 

ভোট পরবর্তী সময়ে পশ্চিমবঙ্গে হিংসাত্মক ঘটনাকে হাতিয়ার করেই এবার মমতার বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে চাইছে গোটা গেরুয়া শিবির। ঠিক এই কারণেই আগেভাগে ১৩টি রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের বিজেপি নেতাদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক সেরে নিয়েছেন দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারী, শিবপ্রকাশ, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, ভুপেন্দ্র যাদবরা।

এ বিষয়ে বিজেপির বক্তব্য হল ভোট পরবর্তী সময়ে গেরুয়া শিবিরের নেতাদের ওপর রাজ্য সরকারের নেতারা অকথ্য অত্যাচার করছে। বিজেপি নেতাদের তৃণমূলের কর্মীরা মারধর করে, তাঁদের বাড়ি ঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে। প্রাণ হাতে করেই বহু বিজেপি সমর্থকরা ঘরছাড়া হয়েছেন। ঠিক এই মূহুর্তে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের পাশে দাঁড়িয়ে বেশকিছু অভিযোগে শামিল হতে আসে জেপি নাড্ডা। কিন্তু করোনা আবহে সবকিছু স্থগিত হয়ে যায়।

গুজরাট এবং মেঘালয়ের বিজেপি সমর্থকদের সাথে আলোচনা করেছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। উত্তরপ্রদেশ, হিমাচলপ্রদেশ, মণিপুর এবং আন্দামান ও নিকোবরের বিজেপি নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে নিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কৈলাস বিজয়বর্গীয় মিটিং সেরেছেন পাঞ্জাব, বিহার ও উত্তরাখণ্ডের সাথে।