Categories
দেশ নতুন খবর বিশেষ লাইফ স্টাইল

বড় ইঙ্গিত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির, আগামী 3 তারিখের পর স্বাভাবিক জনজীবন হতে পারে গ্রীন জোন গুলিতে

আগামী মে মাসের 3 তারিখে শেষ হবে দ্বিতীয় দফার লকডাউন।আর তারপর দেশজুড়ে করোনাকে রুখতে কী পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে তা ঠিক করতে আজ 9 টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সাথে বৈঠকে বসেছিলেন  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর সেই বৈঠকের পর বেরিয়ে এল বড় ইঙ্গিত, যেখানে জানতে পারা গেছে এবার করোনা এলাকা গুলিতে গ্ৰীন জোনে স্বাভাবিক করা হতে পারে জনজীবন। আর বাকি এলাকা গুলোতে বহাল থাকবে এই লকডাউন।তবে এখনো পর্যন্ত এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি এই বিষয় নিয়ে, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে আগামী মে মাসের 2 তারিখে।

যারা জানেন না তাদের উদ্দেশ্যে বলে রাখি দেশজুড়ে যেভাবে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে তার জেরে একাধিক জোনে ভাগ করা হয়েছে গোটা দেশকে। যেখানে গ্রীন জোনকে রাখা হয়েছে সবচেয়ে নিরাপদ এলাকা বলে। এখানে গ্রীন জোন বলতে বোঝানো হয়েছে সেই এলাকাগুলিতে যেখানে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ একদম ছড়ায় নি। আর সেই জোনগুলিতে আগামী 3 তারিখের পর স্বাভাবিক হতে পারে জনজীবন এমনটাই আশঙ্কা করা হচ্ছে। ন’টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের কাছে এই প্রস্তাব রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, আর এই প্রস্তাবেই নাকী রাজী হয়েছেন ভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা। আর যে রাজ্য বা এলাকাগুলিতে করোনা সংক্রমণের হার অত্যাধিক সেই রাজ্যগুলি ও এলাকা গুলিতে রেড জোন নামে চিহ্নিত করা হয়েছে। আর এই রেড জোনে রয়েছে বেশিরভাগ হটস্পট এলাকাগুলি। তাই এই এলাকাগুলিতে আবারো তিন তারিখের পর জারি থাকবে লকডাউন এমনটাই মনে করা হচ্ছে। তাই শুধুমাত্র এক্ষেত্রে যদি রেড জোন গুলি বন্ধ থাকে লকডাউন তাহলে দেশের অর্থনৈতিক প্রভাব ও অনেকখানি কম পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে যাই হোক চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আবারো একবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দের সাথে এই বিষয়ে আলোচনায় বসবেন।আর প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে আগামী বুধবার দিন আবারো এই নিয়ে চূড়ান্ত বৈঠক করা হবে সেই বৈঠকে নেওয়া হবে আগামী দিনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। যেখানে মূল সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে এই লকডাউনকে নিয়ে, আর আগামী মে মাসের 2 তারিখে রয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এই লকডাউনকে নিয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত ঘোষণার কথা।