লকার ব্যবহারের নিয়মে আসতে চলেছে বড়োসড়ো পরিবর্তন! নতুন নির্দেশিকা জারি RBI-এর

রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফ থেকে জারি করা হচ্ছে নতুন নির্দেশিকা । লকার ব্যবহারের ক্ষেত্রে থাকছে নতুন নিয়ম। ব্যাঙ্কের লকার গুলি অতিরিক্ত আমানত এবং নিরাপত্তার জন্যই নিয়ে আসা হচ্ছে এই সমস্ত নতুন নিয়ম। সুরক্ষিত হেফাজতে থাকবার জন্যই রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফ থেকে নতুন নির্দেশ দেওয়া হলো। মূলত ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্ক অ্যাসোসিয়েশন এবং গ্রাহকদের অভিযোগের ভিত্তিতেই এই নতুন সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে।এই নতুন নির্দেশিকায় বেশ কিছু নিয়ম লাগু করা হচ্ছে।

আসুন দেখে নেওয়া যাক কী কী থাকছে এই নতুন নির্দেশিকায়:—-

**অনেক সময়ই গ্রাহক লকার ভাড়া নেওয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয় ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষকে । যে গ্রাহক ভাড়া নেন পরবর্তীকালে তিনি সেই লকার আর পরিচালনা করেন না অথবা সংশ্লিষ্ট ভাড়া দেন না । অনেক সময় এ ধরনের ঘটনা ঘটার জন্য এবার থেকে ব্যাঙ্কের কাছে লকার ভাড়াই ভাড়া নেবার জন্য এককালীন বরাদ্দ হিসাবে মেয়াদি আমানত নিয়ে নেওয়া হবে। পরবর্তীকালে লকার ভাড়া নেবার পর গ্রাহক যেন নিয়মিত তা চার্জ দেন তা নিশ্চিত করতে এ রকম সিদ্ধান্ত। তিন বছরের লকার ভাড়া নেবার চার্জ এককালীন নিয়ে নেওয়া হবে। তবে এক্ষেত্রে বলা হচ্ছে নিয়মিত যে সমস্ত গ্রাহকেরা লকার ভাড়া দিয়ে এসে থাকেন ব্যাঙ্কের তরফ থেকেই সেই সমস্ত গ্রাহকদের কাছ থেকে এককালীন টাকা নেওয়া হবে না।

**নিয়মিত গ্রাহকদের কাছ থেকে যদি ভুলবশত ব্যাঙ্ক অগ্রিম টাকা নিয়ে থাকে তাহলে উপযুক্ত সময়ে পরিশোধ করে দেওয়া হবে । প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ গ্রাহকদের কাছে অত্যন্ত দ্রুততার সাথে সুষ্ঠুভাবে সমস্ত তথ্য সহ পরিস্থিতি অবগত করতে বদ্ধপরিকর থাকবে।

যদি দুর্ঘটনাবশত গ্রাহকদের লকারে থাকা সামগ্রী ক্ষয়ক্ষতি হয় বা হারিয়ে যায় তাহলে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ বোর্ড অনুমোদিত বিস্তৃত নীতি অনুযায়ী সমস্ত বিবরণ দিতে দায়বদ্ধ থাকবে।

**এছাড়া সমস্ত ব্যাঙ্কগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে লকার গুলি যাতে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা হয় সেদিকে যথেষ্ট নজর দিতে হবে। অবাঞ্চিত কেউ যেন লকারের কাছে যেতে না পারে।

**এছাড়া ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষকে এটাও নিশ্চিত করতে হবে গ্রাহকরা লকারে কি ধরনের দ্রব্য সামগ্রিক যাচ্ছে সেদিকে নজর যেন দেওয়া হয়। কোন রকম বিপদজনক সামগ্রী যেন গ্রাহকরা না রাখে সেই দিকটিও নিশ্চিত করতে হবে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষকে। এই জন্য ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ গ্রাহকদের লকার ভাড়া দেবার সময় একটি অতিরিক্ত চুক্তি ধারা অন্তর্ভুক্ত করবে।

** আরও বলা হচ্ছে কোন প্রাকৃতিক ক্ষয়ক্ষতি বা দুর্যোগ যেমন বন্যা, ভূমিকম্প ইত্যাদির ফলে গ্রাহকদের লকারে থাকা দ্রব্যসামগ্রীর ক্ষয়ক্ষতি হলে তার দায় ব্যাঙ্ক নেবে না । প্রাকৃতিক দুর্যোগের জন্য ক্ষয়ক্ষতির কোন দায়ভার ব্যাঙ্কের ওপর বর্তাবে না।