বিজেপি শাসিত ২ রাজ্যে বড় ঘোষণা, কেবল মাত্র দুটি সন্তান হলেই মিলবে সরকারি চাকরি সহ সরকারি সুযোগ-সুবিধা

যে সমস্ত মানুষরা চিন্তা করেন যে দুটো বাচ্চার বেশি সন্তান হওয়া উচিত নয় তাদের পক্ষে উত্তর প্রদেশের জীবনযাত্রা সহজ হবে। উত্তরপ্রদেশের সেই সমস্ত ব্যক্তিরা সরকারি সাহায্য পাবেন যারা দুটি সন্তানের বেশি সন্তান নিতে চান না। জন্মনিয়ন্ত্রণের জন্য উত্তরপ্রদেশ সরকার এমনই নীতি গ্রহণ করেছে। আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মাও শনিবার বলেছেন যে, বিশেষ কয়েকটি সরকারি প্রকল্পের সাহায্যের জন্য দুটি সন্তানের নীতি বাস্তবায়িত করবে।

গত শনিবার অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন, অসমি এমন কিছু প্রকল্প আছে যেগুলো অপর দুই সন্তানের নীতি বাস্তবায়ন করা যাবে না। এই প্রকল্প গুলির উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি স্কুল-কলেজে বিনামূল্যে শিক্ষার প্রকল্প এবং প্রধানমন্ত্রী আবাসন যোজনার কথা বলেছেন। এর পাশাপাশি তিনি আরো জানিয়েছেন যে কিছু প্রকল্প আছে যেগুলো উপর দুই সন্তান নীতি বাস্তবায়ন করা যেতে পারে।

উত্তরপ্রদেশ আইন কমিশন বর্তমানে রাজস্থান ও মধ্য প্রদেশ সহ আরও কয়েকটি রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা, সামাজিক পরিস্থিতি এবং অন্যান্য বিষয়গুলো র দিকে নজর রাখছে। কয়েক দিনের মধ্যেই তারা জন্মনিয়ন্ত্রণের এই নীতির ব্যাপারে একটি প্রতিবেদন তৈরি করে রাজ্য সরকারের কাছে পেশ করবে। গত চার বছর ধরে উত্তর প্রদেশের আইনের বিরুদ্ধে ধর্ম নিষিদ্ধ আইন এবং উত্তর প্রদেশের সরকারী ও ব্যক্তিগত সম্পত্তি ক্ষতিপূরণ পুনরুদ্ধার আইন সহ রাজ্যে অনেকগুলি নতুন আইন প্রয়োগ করার কাজে যুক্ত আছে এই সরকার।

উত্তরপ্রদেশে যে প্রকল্পগুলির প্রচলন আছে সেই প্রকল্প গুলির মধ্যে অনেক প্রকল্প গুলির সাহায্য পাবে না যে সমস্ত উত্তরপ্রদেশের অধিবাসীদের দুটির অধিক সন্তান থাকে। যে কোনো নিয়মের মাধ্যমেই উত্তরপ্রদেশের পিতামাতাদের জন্মনিয়ন্ত্রণের অধীনে আনতে হবে। যাদের দুটি সন্তান তাদের বেশ কিছু সরকারি সুযোগ-সুবিধা দিয়ে এবং মে সমস্ত সরকারি কর্মচারীদের দুটি সন্তান থাকবে তাদের বাড়তি কিছু সুবিধার ব্যবস্থাও করা হতে পারে।