বড় খবর- আজ থেকে শুরু হচ্ছে না শুটিং, আবারও মাথায় হাত সিরিয়াল প্রেমীদের..

প্রায় তিন মাস ধরে করোনা ভাইরাসের জেরে বন্ধ রয়েছে সমস্ত রকম শুটিংয়ের কাজ কর্ম,তবে কিছুদিন আগে জানানো হয়েছিল আগামী 10 জুন থেকে শুরু করা হতে চলেছে বাংলা সিরিয়ালের শুটিং টলিগঞ্জে। তবে এখন খবরটি বেরিয়ে আসছে সেটি সিরিয়াল প্রেমীদের জন্য দুঃখজনক হতে পারে কারণ আর্টিস ফোরামের তরফ থেকে জানানো হয়েছে আজ থেকে শুরু করা হচ্ছে না শুটিংয়ের কাজ। আর্টিস ফোরামের দাবি যেহেতু শুটিং শুরুর প্রথম দিন থেকে বিভিন্ন শিল্পীদের বীমা এবং স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ আশ্বাস দিতে হবে কিন্তু এখন সেটি দিতে পারা যায়নি তাই আপাতত শুটিং শুরু করা যাচ্ছে না।

তবে অন্যদিকে প্রযোজকদের তরফে জানানো হয়েছে চ্যানেল, ফেডারেশন এবং প্রযোজকদের উদ্যোগ ও সহযোগিতা থাকা শর্তেও এক্ষেত্রে আর্টিস ফোরাম এর আপত্তির কারণে শুটিং শুরু হচ্ছে না আপাতত।এর পাশাপাশি তারা এই কথাও জানিয়েছেন যতদিন করোনা পরিস্থিতি থাকবে ততদিন শুটিং হবে না।প্রসঙ্গত যেমনটা আমরা জানি যবে থেকে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ দেশজুড়ে পড়তে শুরু করেছে তবে থেকেই একাধিক ক্ষেত্রে বন্ধ করা হয়েছে সমস্ত রকম শুটিং এর কাজকর্ম এমন কী এই মরণ ভাইরাস করোনার জেরে পিছিয়ে গেছে সমস্ত রকম সিনেমার মুক্তির দিনে।

তবে গত বৃহস্পতিবার দিন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় আগামী 10 জুন থেকে সিনেমা, মেগাসিরিয়াল,ও ওয়েব সিরিয়েলের শুটিংয়ের কাজকর্ম শুরু করা হবে। মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস এর সঙ্গে বৈঠকে বসার পরই এরকম এক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল তা জানানো হয়।তবে এক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেওয়ার পাশাপাশি নেওয়া হয়েছিল একাধিক বিধি নিয়ম যেগুলি মেনেই শুরু করা হতো শুটিংয়ের কাজ কর্ম। যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল দশ বছরের কম বয়সী কোনো শিশু শিল্পী কে এখন সেটে আনা যাবে না তাছাড়া অন্যদিকে 65 বছরের বেশি বয়সী কোন অভিনেতা বা অভিনেত্রীদের এখন কাজ করতে না যাওয়াই ভালো তবে এক্ষেত্রে তাদের বাধা দেওয়া হয়নি।

যদিও এরকম এক ঘোষণা শোনার পরে খানিকক্ষণের জন্য টলিগঞ্জের স্টুডিও পাড়ায় আশার আলো দেখা গিয়েছিল তবে আবারো এই শুটিং বন্ধের কথা শুনে মাথায় হাত পড়েছে টেকনিশিয়ান সহ সমস্ত সিরিয়াল প্রেমিদের। যেমনটা আমরা জানি গত তিন মাস ধরে করোনার প্রকোপে জেরে বন্ধ রয়েছে কাজকর্ম যার দরুন রোজগার নেই এক প্রকার আবার অনেকের ছবির কাজকর্ম বন্ধ হয়ে রয়েছে অর্ধেক হয়েই। তাই এভাবে ক্ষতির পরিমাণ বেড়েছে অনেকগুণ, আর এর মধ্যেই নতুন করে শুটিং বন্ধের খবর ভবিষ্যতের কথা ভেবে দুশ্চিন্তায় টলিপাড়ায় অনেকেই।