এপ্রিলে অনুষ্ঠিত নাও হতে পারে আইপিএল এবার আইপিএলের জন্য বিকল্প দিন কোন ভাবছে BCCI

যেভাবে দেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ আছড়ে পড়েছে তার জেরে এখন একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে ক্রিকেট জগতের সাথে যুক্ত থাকা সকলেরই মাথায় এখন একটাই প্রশ্ন এবার কী তাহলে আইপিএল ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ আগামী মাসে শুরু করা সম্ভব হবে? এর আগে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ এর দরুন 29 শে মার্চ শুরু হওয়া IPL কে বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড বা বিসিসিআই এর তরফ থেকে।

আপাতত এই IPL -2020 কে 15 ই এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে যাই হোক কবে যে এই t-20 শুরু হবে তা জোর গলায় কেউ বলতে পারবে না, কারণ যেভাবে দেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে চলছে তার জেরে ক্রিকেট বোর্ড কর্তারা মনে করছেন এবার এই আইপিএল কে আগামী এপ্রিল মাসের মধ্যে শুরু করা যাবে না। তার দরুন আগামী শনিবার দিন আইপিএল ফ্রেঞ্চাইজিদের নিয়ে একটি সভা গঠন করা হয়েছিল আর সেখানে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তারা হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে পদ্ধতি ধরে রেখে এগোতে চাইছেন।

তার দরুন তারা আটটা দলকে দুটো গ্রুপে ভাগ করে খেলাতে হলেও আপত্তি প্রকাশ করবে না তবে যদি এপ্রিল মাসের মধ্যে খেলা না হয় তাহলে কী হবে? সেই নিয়ে বিকল্প চিন্তা ভাবনা করতে শুরু করে দিয়েছে ক্রিকেট বোর্ড। এবং তার দরুন যে পদ্ধতিটি এখন বেরিয়ে আসছে সেখানে দেখা যাচ্ছে ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রাম বা এফটিপি খতিয়ে দেখলে দেখা যাবে জুলাই মাস থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কোন টুর্নামেন্ট বা সফর নেই এই সময়ের মধ্যে টুনামেন্ট বলতে রয়েছে এশিয়া টি-টোয়েন্টি কাপ টি। আর যেটি এবার অনুষ্ঠিত হতে চলেছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী তে।

তবে এই সিরিজটি শুরু হওয়ার আগে কিন্তু ইংল্যান্ডে খেলতে যাবে পাকিস্তান ক্রিকেটারা,তাছাড়া এই সিরিজটি শুরু হওয়ার আগে আয়ারল্যান্ডের সাথে ইংল্যান্ডের রয়েছে একটি সাদা বলের সিরিজও তবে এক্ষেত্রে অন্যান্য দেশগুলির টেস্ট খেলা ছাড়া সেরকম কোনো খেলা নেই বিশেষ করে এর মধ্যে নাম রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা,দক্ষিণ আফ্রিকা,আফগানিস্তান, বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা দের। তারা এই সময় বিশ্রাম এই থাকবে।

তাই বিসিসিআই ভাবতে শুরু করেছে যদি এবারের আইপিএল এপ্রিল মাসের মধ্যে শুরু করা না যায় তাহলে সেটিকে পেছিয়ে জুলাই সেপ্টেম্বরের মধ্যে যেকোনো এক সময় করা সম্ভব হয়ে উঠবে কারণ সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ বাদ দিলে ভারতের সাথে শ্রীলংকার খেলা রয়েছে কয়েকটি, যেখানে টি- টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার আগে শ্রীলংকা সঙ্গে একদিনের একটি ম্যাচ খেলবে ভারত আর সঙ্গে রয়েছে আরও তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।প্রসঙ্গত বলে রাখি এর আগে 2009 সালে IPL অনুষ্ঠিত করা হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকায় যেখানে মাত্র 37 দিনে এই টুর্নামেন্ট শেষ করা হয়েছিল বিসিসিআই এর তরফ থেকে।তবে যাইহোক এখন সবকিছু নির্ভর করছে সে এই করোনা ভাইরাসের প্রকোপের ওপর যেভাবে করোনা ভাইরাসের প্রভাব থাকবে দেশে সেভাবে এই প্ল্যান গুলির ওপর কার্যকর করা হবে।