পুজোর মরশুমে ভারত জুড়ে মোট ২১ দিন বন্ধ থাকছে ব্যাঙ্ক, তাই প্রয়োজনের ফেলে থাকা কাজ সেরে নিন এই দিনগুলিতে

আজকে আলোচনা করব এমন একটি বিষয় নিয়ে যা আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী তা হল টাকা আর মাসের ২১ দিন যদি ব্যাংকই বন্ধ থাকে তাহলে তো মানুষের মাথায় হাত পরার জোগাড়। আমরা জানবো গোটা অক্টোবর মাস জুড়ে ব্যাংক বন্ধের সেই তালিকা গুলি:

১লা অক্টোবর : যাকে বলা হয় হাফ ইয়ারলি ব্যাংক একাউন্ট ক্লোজিং ডে। মূলত এদিন গ্যাংটক এ সমস্ত ব্যাংক বন্ধ থাকবে।

২রা অক্টোবর : এটি রবিবারের দিন হওয়ায় সেটি সাপ্তাহিক ছুটির তালিকাতেই পড়ছে।

৩রা অক্টোবর : এই দিন কলকাতা সহ পাটনা গুয়াহাটি ভুবনেশ্বর আগরতলা ইম্ফল এবং রাঁচিতে ব্যাংকিংয়ের যাবতীয় পরিষেবা বন্ধ থাকছে।

৪ঠা অক্টোবর : এই দিনটি একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন। এদিন বাঙালির যেমন দুর্গা পূজার নবমী, তেমনি অপরদিকে সারা ভারত জুড়ে পালিত হয় দশেরা। তাই এই দিন কলকাতা, লখনৌ, পাটনা , আগরতলা, বেঙ্গালুরু , চেন্নাই গ্যাংটক গুয়াহাটি কোচি এবং রাঁচিতে সমস্ত ব্যাংক বন্ধ থাকবে।

৫ই অক্টোবর : এই দিনটিও লখনঔ মুম্বাই নাগপুর শিলং শিমলা দেরাদুন জয়পুর হায়দ্রাবাদ আমেদাবাদ প্রভৃতি জায়গায় ব্যাংকিং পরিষেবা বন্ধ থাকবে।

৬ই ও সাতেই অক্টোবর : এই দিন গুলিতে গ্যাংটকের সমস্ত রকম ব্যাংকিং পরিষেবা ব্যাহত হতে চলেছে।

৮ ই অক্টোবর : এই দিন ফাতেহা দোয়াজ দাহাম। এই দিন ব্যাংকিং পরিষেবা বন্ধ থাকছে জম্মু শ্রীনগর ভোপাল এবং তিরুবনন্তপুরমে।

৯ ই অক্টোবর : এদিনটি রবিবার তাই এটি সাপ্তাহিক ছুটির দিন।

১৩ ই অক্টোবর : মূলত সিমলায় ব্যাংকিং পরিষেবা বন্ধ থাকবে।

১৪ঠা অক্টোবর : শুক্রবার জম্মু-কাশ্মীরের সমস্ত ব্যাংকিং পরিষেবা বন্ধ।

১৬ই অক্টোবর : সাপ্তাহিক ছুটির দিন কারণ রবিবার।

১৮ই অক্টোবর : এই দিনটিতে গুয়াহাটিতে সমস্ত রকম ব্যাংকিং পরিষেবা বন্ধ।

২২ শে অক্টোবর : মাসের চতুর্থ শনিবার হওয়ায় সাপ্তাহিক ছুটি।

২৩ অক্টোবর : শনিবারের পর আসে রবিবার তাই এটিও সাপ্তাহিক ছুটি।

২৪ অক্টোবর : এই দিনটি সারা ভারতে দীপাবলি পালিত হবে। অপরদিকে রাজ্যবাসী পালন করবে কালীপুজো বা ভূত চতুর্দশী। তাই এ দিনটিতে আগরতলা আমেদাবাদ বেলাপুর চন্ডিগড় কোচি কলকাতা নয়া দিল্লি পাটনা, প্রভৃতি জায়গায় ব্যাংকিং পরিষেবা বন্ধ থাকবে।

৩০ অক্টোবর : এই দিনটিও রবিবার তাই সাপ্তাহিক ছুটি।

৩১ শে অক্টোবর : ছট পুজো তার সাথে পালিত হবে সরদার বল্লভ ভাই প্যাটেলের জন্মবার্ষিকী। এই দিনটিতে রাঁচি পাটনা এবং আমেদাবাদে সমস্ত ব্যাংকিং পরিষেবা বন্ধ থাকবে।

এমতাবস্থায় তাই পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য মনে রেখে প্রয়োজন মত ব্যাংকিং কাজ সেরে ফেলতে হবে তা না হলেই বড়সড়ো মুশকিলের মধ্যে পড়তে হতে পারে আমাদের সকলকেই।