আগামী তিনদিন রাজ্যের একাধিক জেলাতে বানভাসির সম্ভাবনা, আবহাওয়া দপ্তরের তরফে জারি সতর্কবার্তা

বর্তমান সময়ে ভারতবর্ষের কিছু রাজ্য বৃষ্টির কবল থেকে পরিত্রাণের দিন গুনছে। এই রাজ্যগুলির মধ্যে অন্যতম হল মহারাষ্ট্র, গোয়া এবং কর্ণাটক। এবার উত্তর বঙ্গোপসাগরের (bay of bengal) উপর নিম্নচাপের ভ্রুকুটি তৈরি হচ্ছে। আর এই তৈরি হাওয়া নিম্নচাপের জন্যই আগেভাগেই সতর্কতা জারি করল আবহাওয়া দফতর (weather office)।

আবহাওয়া দপ্তর সতর্কবার্তা দিতে গিয়ে নিচু এলাকাগুলির প্লাবনের কথা জানিয়েছে। অতিভারী বৃষ্টির জেরে দক্ষিণবঙ্গের (south bengal) নদীগুলির জলস্তর বাড়তে পারে বলে মনে করছে আবহাওয়া দপ্তর। এমনকি নিচু এলাকাগুলিও প্লাবিত হতে পারে।

বঙ্গোপসাগরের উপরে একটি নিম্নচাপ রেখা তৈরি হচ্ছে। আর এই নিম্নচাপ রেখাটি ২৮ই জুলাই পরিপূর্ণ রূপ ধারণ করবে। আর এই নিম্নচাপের জেরেই ২৭ জুলাই থেকে বৃষ্টি হতে পারে দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকায়। ২৭ জুলাই থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় এই নিম্নচাপের জেরে বৃষ্টি হবে।

আবহাওয়া দপ্তর থেকে জানিয়েছে নিম্নচাপের প্রভাবে সাতাশে জুলাই থেকেই পশ্চিমবঙ্গের বেশকিছু জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, হুগলি, হাোড়া, পূর্ব বর্ধমানে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এই জেলাগুলোর জন্য হলুদ সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে।

২৮ ও ২৯ জুলাই ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি সর্তকতা জারি করেছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। ওই দিনগুলিতে কমলা সর্তকতা জারি হয়েছে উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে। এই জেলাগুলিতে (৭-২০ সেমি) বৃষ্টি হতে পারে। ভারী বৃষ্টি (৭-১১ সেমি)হতে পারে কলকাতা, হুগলি, হাওড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, নদিয়া, পূর্ব বর্ধমানে। এর পাশাপাশি ৩০ জুলাই হলুদ সর্তকতা জারি করা হয়েছে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান এবং বীরভূমে। এই জেলাগুলিতে ৩০ জুলাই ভারী বৃষ্টি হতে পারে।