এই তৃণমূল আর না! এবার নিজের গলায় গাওয়া গান নিয়ে অস্বস্তিতে পড়লেন বাবুল সুপ্রিয়: ভাইরাল ভিডিও

বাবুল সুপ্রিয়, যিনি একজন বিখ্যাত গায়ক হওয়ার পাশাপাশি একজন বিখ্যাত রাজনীতিবিদ। গত বছরে নির্বাচনের কিছুদিন আগে দিল্লিতে গিয়ে তিনি যোগদান করেছিলেন বিজেপিতে। বিজেপির পতাকা হাতে নিয়ে লড়েছিলেন বিধানসভা নির্বাচনে। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তিনি জয়ী হতে পারেননি। তারপর দলের মধ্যে কিছু মনোমালিন্য হওয়ার পর আরও একবার তিনি ফিরে এসেছেন তৃণমূলের নিজের জায়গায়।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূলকে বিদ্ধ করে গান ধরে ছিলেন তিনি। ঘাসফুল শিবিরকে উৎখাত করার কথা শুনতে পাওয়া গিয়েছিল তার গলায়। রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল সেই গান। কিন্তু সেই গান সকলের সামনে তাকে অপ্রস্তুতে ফেলে দেবে, সেটা হয়তো স্বয়ং বাবুল সুপ্রিয়ও বুঝতে পারেননি।

গতকাল সন্ধ্যায় আগরতলায় তৃণমূলের প্রচার সভায় উপস্থিত ছিলেন বাবুল সুপ্রিয় এবং যুব সভাপতি সায়নী ঘোষ। কি সেই সময় মঞ্চের পাশের একটি রাস্তা দিয়ে যায় একটি ম্যাটাডোর, সেখান থেকেই ভেসে আসে বাবুল সুপ্রিয় সেই বিখ্যাত গান।”এই তৃণমূল আর নয়… ফুটবে এবার পদ্মফুল, বাংলা ছাড়ো তৃণমূল”।

গান শুনে স্বাভাবিকভাবেই অপ্রস্তুতে পড়ে যান বাবুল সুপ্রিয়। গান শুনে ক্ষুব্দ সায়নী মাইক্রোফোন তুলে দেন বাবুলের হাতে। বাবুল সুপ্রিয় সঙ্গে সঙ্গে সকলের উদ্দেশ্যে বলেন,” ভেবে দেখুন বিরোধীদলের নেতারা কতখানি অহংকারী হলে তবেই এমন দুর্ব্যবহার করে। যে ছেলেটি এই গান লিখেছিল সেও কিন্তু আজ দলবদল করেছে। আমি কথা দিচ্ছি আরো ভালো গান আমি বানাবো তৃণমূলের জন্য”।

এই প্রসঙ্গে বিজেপির প্রতিক্রিয়া, বিজেপি যা খুশি গান বাজাতে পারে। তাতে কারোর কিছু বলার থাকে না।কিন্তু বাবুল সুপ্রিয় আধুনিক সঙ্গীত শিল্পী হয়েও নিজের গান শুনতে চাইছেন না, এটা সত্যি হতাশাজনক।উল্লেখ্য, আগরতলায় ভোটের প্রচারে প্রথমবার লড়বে তৃণমূল। বারবার আক্রমণ করা সত্ত্বেও প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে তৃণমূল নেতারা। কিন্তু এরই মধ্যে বিজেপির প্রচারের গাড়িতে এমন একটি গান আরো একবার অস্বস্তি বাড়িয়ে দিল তৃণমূল নেতাদের।