মাসিক পেনশন ৫০০০ টাকা, ১৮ থেকে ৪০ বছরের যে কোন ভারতীয় করতে পারবেন আবেদন

অটল পেনশন যোজনা (Atal Pension Yojana) বাড়ির পরিচারিকা, গাড়ির চালক এই ধরনের পেশার সঙ্গে যুক্ত অসংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মীদের আর্থিক নিরাপত্তা দেবে৷ তাদের আর্থিক নির্ভরতা বাড়াতে এই স্কিম করা হয়েছে৷ স্বাবলম্বন যোজনা NPS লাইট স্কিমের (Swavalanmban Yojana NPS Lite Scheme) জায়গায় আসে এই অটল পেনশন যোজনা আসে ২০১৫ তে৷ এই স্কিমের নিয়ন্ত্রক সংস্থা হল পেনশন রেগুলেটরি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (PFRDA)দেশের সমস্ত পোস্ট অফিস ও জাতীয় স্তরের ব্যাঙ্কগুলিতে উপলব্ধ রয়েছে এই অটল পেনশন যোজনা।

 

কারা করতে পারবেন?

• ১৮-৪০ বছরের যে কোনও ভারতীয় স্কিমের জন্য আবেদন করতে পারেন।
• একটি আধার নম্বর ও বৈধ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে।
• মাসিক পেনশনের পরিমাণ ১০০০-৫০০০ টাকা পর্যন্ত।
কী করবেন?

• অনলাইনে ফর্মটি ডাউনলোড করে তারপর ফিল আপ করে সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্কে জমা দেবেন৷
• আবেদনকারীর রেজিস্টারড মোবাইল নম্বরে একটি SMS যাবে। এ ছাড়া নেট ব্যাঙ্কিংয়ের সাহায্যেও APY-এর জন্য নিজেদের নাম নথিভুক্ত করা যায় এবং অটো ডেবিট পরিষেবার সুবিধা নেওয়া যেতে পারে।

নতুন বছরের শুরুতেই বদলাতে চলেছে একগুচ্ছ নিয়ম, জেনে নিন কী কী নিয়মে আসছে ফের বদল

যাঁরা ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাস শেষ হওয়ার আগেই এই স্কিমে যোগ দিয়েছিলেন, তাদের জন্য বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে কেন্দ্র সরকার । কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বার্ষিক ১০০০ টাকা পর্যন্ত দেওয়ার কথা জানানো হয়েছে। তবে এটা নির্ভর করছে মাসিক পেনশনের ফিক্সড অ্যামাউন্টের উপর। যেমন, যদি কেউ ১৮ বছরে নাম নথিভুক্ত করান, তার মাসিক পেনশন হবে ৪২ টাকা। আর যদি কেউ ৪০ বছর বয়সে নাম নথিভুক্ত করেন, তা হলে মাসিক পাবেন ২৯১ টাকা।

 

 

বছরে একবার পেনশনের বরাদ্দ অর্থ বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে APY গ্রাহকদের। তবে, একবার স্কিম শুরু করলে ছেড়ে দেওয়া যায় না। যদি উপভোক্তার মৃত্যু হয়, তা হলে ৬০ বছর পর্যন্ত সেই টাকা পেনশন পাবেন তাঁর স্ত্রী। ৬০ বছরের আগে উপভোক্তার মৃত্যু হলে, তাঁর স্ত্রীর কাছে স্কিম বন্ধ করার বা স্কিম চালু রেখে পুরো টাকা দাবি করার বিকল্প রয়েছে।