শুধু সোহমের সাথে সিনেমাতেই নয়, রামকৃষ্ণের বিপরীতে মুখ্য ভূমিকা-তেও ছিলেন অর্পিতা

আস্তে আস্তে একের পর এক রহস্য উন্মোচিত হচ্ছে ঠিক যেন কোন ডিটেকটিভ সিনেমার গল্পর মত, চরম সাসপেন্স। এবারে ফের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে উঠে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য।সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি নাচের ভিডিও মারাত্মক ভাইরাল হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে অভিনেতা সোহম চক্রবর্তীকে আর তাঁর সঙ্গে রয়েছেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ও। তবে এখানেই শেষ নয়, জানলে অবাক হতে হয় ছোট পর্দায় রানী রাসমণি খ্যাত রামকৃষ্ণর বিপরীতেও অভিনয় করেছিলেন এই অর্পিতা মুখোপাধ্যায়।

একসময়ের ১৬৫০ বর্গফুটের শীততাপ নিয়ন্ত্রিত বিলাসবহুল টালিগঞ্জের ডায়মন্ড সিটির ফ্ল্যাটই ছিল তাঁর ঠিকানা এবং যাতায়াতের সুবিধার্থে গ্যারেজে থাকতো বহু মূল্যের গাড়ি, কিন্তু ভাগ্যের কি নিঠুর পরিহাস। বর্তমানে তাঁর স্থান হয়ে গেল আলিপুর মহিলা সংশোধনাগার।

রাতারাতি বদলে গিয়েছে তাঁর পরিচয়, একসময় পেশাগত মডেল এবং অভিনয় জগতের মাধ্যমে পরিচিতি লাভ করলেও বর্তমানে সেটিও বদলে গিয়েছে। ২০১০ সালের সংঘমিত্রা চৌধুরীর পরিচালনায় “জিনা” ছবিতে অভিনয় করেছিলেন. দুজনেই, যেখানে সোহম ছাড়াও ছিল ইন্দ্রানী হালদার, অভিষেক চট্টোপাধ্যায় এমনকি অভিনেত্রী স্বর্ণ কমল দত্ত। এ কথা স্বীকার করেছেন সোহম নিজেই এবং এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ব্যক্তিগত জীবনে তাঁর সাথে কোনো পরিচয় ছিল না, সমস্তটাই প্রফেশনাল সম্পর্ক।তাঁর ক্যারিয়ারের একদম প্রথম দিকের সিনেমা এটি।

প্রসঙ্গত, তবে সম্প্রতি পরিস্থিতি বদলেছে তাই এদিন অর্পিতার আইনজীবী নীলাদ্রিশেখর ভট্টাচার্য জানান, পরিচিত পরিজনরাও কেউই আর যোগাযোগ রাখতে পছন্দ করছেন না অর্পিতার সাথে, সবাই সমস্ত দিক থেকে যোগাযোগ ছিন্ন করে দিয়েছেন। তাঁর সহসাথীরাও সময় পেলে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে সম্পর্কের কথা তুলে খোঁচা দিচ্ছে। তবে সম্প্রতি এই ভিডিও ক্লিপিং নিয়ে আরো একবার উত্তেজনা ছড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া।