করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আশা যোগাচ্ছে ভারতের আরোগ্য সেতু অ্যাপ, জানালো বিশ্ব ব্যাংক

সম্প্রতি কয়েক দিন আগেই ভারত সরকারের তরফ থেকে আনা হয়েছিল আরোগ্য সেতু (Arogya Setu) নামের একটি অ্যাপ। এই অ্যাপটি আপনাকে জানিয়ে দেবে যে আপনার শরীরে যে সমস্ত লক্ষণগুলি রয়েছে তা করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের লক্ষণ কিনা। এছাড়া আপনার আশেপাশে কেউ যদি করোনা আক্রান্ত হয়ে থাকেন তাহলেও এই অ্যাপ জানিয়ে দেবে। তাই সরকারের তরফ থেকে এই অ্যাপ ডাউনলোড করার জন্য জোর দেওয়া হচ্ছে। এই অ্যাপটি বানিয়ে ভারত পিছনে ফেলে দিয়েছে বিভিন্ন নামিদামি টেক কোম্পানিগুলোকে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন এই অ্যাপ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ আটকানোর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এছাড়াও বিশ্ব ব্যাংক পর্যন্ত এই অ্যাপের প্রশংসা করেছেন।বিশ্ব ব্যাংক বলেছেন, এই অ্যাপটি নতুন আশার আলো দেখাচ্ছে। আরোগ্য সেতু ভারতে লঞ্চ করার কিছুদিন পরেই টেকনোলজি দুনিয়ায় দুটি বড়ো কম্পানি অ্যাপেল এবং গুগলের তরফ থেকে জানানো হয়, তারা যৌথ ভাবে স্মার্টফোনের জন্য এমন একটি অ্যাপ বানানো হবে যেটাই যোগাযোগ ট্রেকিংয়ে সাহায্য করবে।

এছাড়া ব্যবহারকারীদের ইঙ্গিত দেবে যে আপনি COVID-19 এ আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আছেন কিনা। নীতি আয়োগ এর সিইও অমিতাভ কান্ত টুইটারে অ্যাপেল এর সিইও টিম কুক এবং গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই কে ট্যাগ করে লিখেন, ‘ ভারত ইতিমধ্যেই COVID-19 -এর যোগাযোগ ট্রাকিং এর মার্গদর্শন করছে। এই অ্যাপটি কে ব্যবহারকারীদের তথ্য যাতে গোপন থাকে সেই হিসেবে বানানো হয়েছে। এবং আমরা খুব খুশি হচ্ছি যে আরোগ্য সেতু অ্যাপ এর মতনই এই দুই সংস্থা মিলে একটি অ্যাপ তৈরি করতে চাইছে।’

ভারতে বানানো আরোগ্য সেতু অ্যাপটির উদাহরণ দিয়ে বিশ্ব ব্যাংক (World Bank) রবিবার একটি রিপোর্ট জারি করে বলে, এই অ্যাপ বড় জনসংখ্যাকে প্রশিক্ষিত করতে এবং সংক্রমন রুখতে সাহায্য করবে। বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ আর্থিক রিপোর্টে জানানো হয়েছে যে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের নজরদারি চালাতে ডিজিটাল পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে।’ এবং বিশ্বব্যাংকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে এরকম একটি পদক্ষেপ পূর্ব এশিয়ার মহামারীর বিরুদ্ধে সফলতা এনে দিয়েছে।আর আজ মঙ্গলবার দিন সকালে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সকল দেশবাসীকে এই আরোগ্য সেতু নামক অ্যাপটি ব্যবহার করার জন্য পরামর্শ দেন।

Related Articles

Close