আপনি কি একঘেয়ে চাকরি করতে করতে হাঁপিয়ে উঠেছেন? তাহলে শুরু করুন এই ব্যবসা! পেতে পারেন বড়ো মুনাফা

ব্যবসা করার ইচ্ছে রয়েছে, কিন্তু পুঁজি নেই। যাদের পুঁজি নেই অথচ চাকরি না করে ব্যবসা করতে চান, কিন্তু টাকার জন্য করতে পারছেন না, তাদের হতাশ হবার কোন কারণ নেই।সামান্য পুঁজি নিয়েই ব্যবসা শুরু করা যায় এবং ভাল আয় ও করা যায়। এমনই এক ব্যাবসার কথা জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞ।

শসা চাষ, এমনই একটা ব্যবসা, যাতে আপনাকে প্রথমে খুব কম টাকাই বিনিয়োগ করে বিপুল আয় করতে পারবেন।চলুন জেনে নেওয়া যাক কি করে এই বিপুল পরিমান আয় করা যেতে পারে :- শসা চাষ সাধারণত গ্রীষ্মকালে হয়ে থাকে।শসা চাষের জন্য ৬০ থেকে ৮০ দিন সময় লাগে। বর্ষাকালে ও শসার ফলন ভালো হয়ে থাকে। শসা সব ধরনের মাটিতে চাষ করা যায়। তবে শসা চাষের জন্য মাটির পিএইচ ৫.৫ থেকে ৬.৮ হলে ভালো হয়। নদী বা জলাশয় এর পাশেও শসা চাষ ভালো হয়।

উত্তরপ্রদেশের এক বাসিন্দা দুর্গা প্রসাদ শসা চাষ করে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করেছেন বলে জানা গিয়েছে।তিনি জানিয়েছেন, শসা চাষ করে ৪ মাসে ৮ লক্ষ টাকা আয় করেছেন। জমিতে নেদারল্যান্ডের শসা চাষ করেছেন দুর্গা প্রসাদ। এই শসার বিশেষত্ব হল এতে কোন বীজ থাকে না। ফলে বড় বড় হোটেল ও রেস্তোরাঁয় এর বিপুল পরিমাণ চাহিদা রয়েছে। সরকারের থেকে ১৮ লক্ষ টাকার সাবসিডি পেয়ে জমিতে সেডনেট হাউস তৈরি করেছিলেন তিনি।

সাবসিডি নেওয়ার পর তাকে মাত্র ৬ লক্ষ টাকা খরচ করতে হয়েছে। এছাড়া নেদারল্যান্ড থেকে তিনি প্রায় ৭২,০০০ টাকার বীজ আনিয়েছিলেন।বীজ লাগানোর৪ মাস পর প্রায় ৮ লক্ষ টাকার শসা বিক্রি করেছেন।এই শসার দাম অন্যান্য শসার থেকে প্রায় দ্বিগুণ। দেশী শশা ২০ টাকা কিলো হিসেবে বিক্রি হলে নেদারল্যান্ড থেকে আনা বীজের শসা প্রায়৪০ থেকে ৪৫ টাকা প্রতি কিলো হিসেবে বিক্রি হচ্ছে। আর এখানেই এই শসা চাষের মুনাফা লুকিয়ে রয়েছে। তবে মার্কেটিংয়ের জন্য সোশ্যালমিডিয়া ব্যবহার করা যেতে পারে ।