অস্ত্র হাতে দেখলেই গুলি’, পুলওয়ামাকাণ্ডে কড়া বার্তা সেনার লেফটেন্যান্ট জেনারেল, কনওয়ালজিত সিং এর…

বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় ভারতীয় জওয়ানদের কনভয়ে জঙ্গিহানার পর থেকে গোটা দেশ উত্তপ্ত। সকল ভারতবাসী চাইছে এবার পাকিস্তানকে এমন সাজা দেওয়া হোক যা তারা সারা জীবন মনে রাখতে পারে। সকলেই চাইছেন এবার কোন প্রকার শান্তি বোঝাপড়ার দিকে না গিয়ে বদলা দিকে যাওয়া যাক।আর এরই মধ্যে মঙ্গলবার সকালে অর্থাৎ আজ এক সাংবাদিক সম্মেলনে পুলওয়ামা কাণ্ডে কড়া বার্তা দিলেন ভারতীয় সেনা। লেফটেন্যান্ট জেনারেল কনওয়ালজিত সিং জানান, এবার থেকে কাশ্মীর উপত্যকায় কোন প্রকার অশান্তি বরদাস্ত করা হবে না। এছাড়া তিনি বলেন অস্ত্র হাতে যদি কাউকে এখানে দেখতে পাওয়া যায় তাহলে তাকে সেখানেই গুলি করে দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারিও জানান।

তবে এখানেই শেষ নয় তিনি নশকাতায় যুক্ত সকল দের আত্মসমর্পণের দাবিও জানান। এ সঙ্গে তিনি কাশ্মীরি মায়েদের উদ্দেশ্যে অনুরোধ করে বলেন তারা যেন তাদের সন্তানদের বোঝান এবং সঠিক পথে চলার জন্য ভালভাবে নির্দেশ দেন। আপনাদের আরো বলে রাখি এই জঙ্গি নিধন চলছে এবার এনকাউন্টার পর্ব তাই নিজেদের নিরাপত্তার জন্য সকলকে তিনি এনকাউন্টারের এলাকা থেকে দূরে থাকার নির্দেশ দেন। তার এই মন্তব্যের ফলে স্পষ্ট বোঝা যায় সেনারা এবার কোন প্রকার জঙ্গি কার্যকলাপ বরদাস্ত করবে না যারা আত্মসমর্পণ করবে তাদের সামাজিক সুরক্ষা দেওয়া হবে বলেও তিনি দাবি করেন। এছাড়া সিআরপিএফ জুলফিকার হাসান, জানান শহীদ জওয়ানদের পরিবার যেন নিজেদের কখনো একা বোধ না করে আমরা সর্বদা তাদের পাশে আছি এবং থাকবো।

আমাদের হেল্পলাইন সব সময় চালু হেল্পলাইন নম্বর 14411। তিনি জানান দেশের যেকোন স্থানে কাশ্মিরিদের জন্য দেওয়া হয়েছে এই হেল্পলাইন।

তাদের যাতে কোন প্রকার অসুবিধায় পড়তে না হয় তার জন্য দেওয়া হয়েছে এই হেল্পলাইন নম্বরটি। তবে জেনারেল কনওয়ালজিত সিং আরো জানান যে জইশ-ই- মহম্মদ পাকিস্তানের সন্তান তাই এই পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার পেছনে পাকিস্তান সেনারা হাত রয়েছে। তিনি আশ্বস্ত দেন পাক অনুপ্রবেশ অনেকটাই কমে এসেছে বলে।