দলে আবারও বড় ভাঙন! দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান আরো এক তৃণমূল বিধায়কের

ভোট মঞ্চে নিজেদের জমিকে শক্ত রাখার জন্য লকডাউন কালেই তৃণমূল এবং বিজেপি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রচার শুরু করেছিল। ভোট আসতে আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দিন। কালকে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি তাঁদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছেন। এবারের প্রার্থী তালিকায় বেশিরভাগ টলিউডের নায়ক নায়িকারা স্থান পেয়েছেন। সেই জন্য অনেক পুরনো বিধায়করা এবার প্রার্থী তালিকার টিকিট পাননি। প্রার্থী তালিকায় স্থান না পাওয়ার জন্য জোড়া ফুল শিবিরের মধ্যে আবারও সৃষ্টি হয়েছে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব।

 

প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর মমতা ব্যানার্জি বলেন যে সমস্ত বিধায়কদের তিনি টিকিট দিতে পারলেন না তাদের নাম উল্লেখ করে জানিয়েছেন যে, তাদেরকে তিনি বিধান পরিষদের সদস্যপদ দেবেন। কিন্তু বাংলায় তো বিধান পরিষদই নেই। সেই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন এবার ভোটে জিতলেন তিনি বিধান পরিষদ তৈরি করবেন।

টিকিট না পাওয়ায় সোনালী গুহ সাংবাদিকদের সামনে হাউ হাউ করে কেঁদে ফেলেন। অপরদিকে তিনি মমতা ব্যানার্জীর উপর দোষারোপ করেছেন। দলের প্রার্থী তালিকায় স্থান না পাওয়ায় তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলাম দলের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে তৃণমূল ছাড়ার ইঙ্গিত প্রকাশ করে দিয়েছেন। বীরভূমের নলহাটি থেকে তৃণমূল বিধায়ক মইনুদ্দিন সামস টিকিট না পাওয়ায় বলেছেন, আমি টুপি পড়া মুসলমান কয়লা মাফিয়াদের সাথে হাত মেলাতে পারিনি বলে আমাকে প্রার্থী তালিকায় রাখা হয়নি।

শনিবার ৬ মার্চ শিবপুরের বিধায়ক জটু লাহিড়ী তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন। ভোটের জন্য গতকালকে যে প্রার্থী তালিকা প্রকাশিত হয়েছে সেই প্রার্থী তালিকায় স্থান না পাওয়ার ক্ষোভেই তিনি দল ছেড়েছেন। এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন যে, বিজেপিতে কোনও স্বার্থ নিয়ে তিনি যোগদান করেননি । কাজ করার জন্য বিজেপিতে এসেছেন।